শীতে মটরশুঁটি কিনে এই সহজ দুর্দান্ত ট্রিকসে করুন সংরক্ষণ, থাকবে সারাবছর টাটকা ও তরতাজা

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতকালীন বিভিন্ন সবজির মধ্যে অন্যতম হলো মটরশুটি। বছরের অন্যান্য সময় কিন্তু এই সবজির দেখা খুব একটা পাওয়া যায় না। তাই যদি অন্য কোন সময় আপনারা এটা খেতে চান তাহলে একটাই উপায় হচ্ছে সংরক্ষণ করে রাখা। শীতকালে যখন বাজারে মটরশুঁটি সস্তা হয়ে যাবে তখন বেশি পরিমাণে কিনে নিয়ে আপনারা এটা সংরক্ষণ করতে পারেন। তবে অনেকেই আছেন যারা এটি সংরক্ষণের পদ্ধতি জানেন না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে তাই আমরা মটরশুটি সংরক্ষণের উপায় আলোচনা করব। সুতরাং একেবারেই সময় নষ্ট না করে আমাদের এই প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ে নিন।

মটরশুটি সংরক্ষণের পদ্ধতি:

১ কেজি পরিমাণে মটরশুটি নিয়ে প্রথমেই ভালো করে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। এবার গ্যাসে একটা প্যান বসিয়ে তাতে জল গরম করতে দিন। এই জলের মধ্যে যোগ করে দিন দেড় চামচ চিনি আর খুব সামান্য লবণ। চিনি একটু বেশি দিতে হবে যাতে মটরশুঁটির রং এক থাকে। জলটা যখন ফুটে ওঠার ঠিক আগের অবস্থায় আসবে তখন আপনাদের মটরশুটি গুলো দিয়ে দিতে হবে। মটরশুঁটি জলে দেওয়ার পর লক্ষ্য করবেন সবকটাই কিন্তু জলের একেবারে নিচের দিকে থাকবে। মিনিট দুয়েক সময় জলে রেখে দিলে এগুলো উপরে উঠে আসবে,তারপর আর রাখার দরকার নেই।। এর থেকে বেশিক্ষণ সময় জলে রাখলে মটরশুঁটির রং নষ্ট হয়ে যাবে।

এবার একটা হাতার সাহায্যে সমস্ত মটরশুটিকে জল থেকে তুলে একটা ছাঁকনিতে নিয়ে নিতে হবে। এবার একটা অন্য পাত্রে কিছুটা পরিমাণ জল নিয়ে তাতে কয়েকটা বরফের টুকরো দিয়ে দিন। তারপর এই ঠান্ডা বরফ জলের মধ্যে গরম মটরশুটি গুলো ঢালুন। অবশ্যই মাথায় রাখবেন যে কড়াই থেকে গরম মটরশুঁটি তুলে নেওয়ার পরেই এই ঠান্ডা জলে দিতে হবে। তাহলে কোন রকম ভাবেই মটরশুঁটির রং নষ্ট হবে না। ৫ মিনিটের মধ্যেই দেখবেন বরফ গলে গেছে এবং মটরশুঁটির রং এর কোনো পরিবর্তন হয়নি। তারপর আবারো একটা হাতার সাহায্যে তুলে বড় ছাঁকনির মধ্যে মটরশুটি গুলোকে নিয়ে নিন। কিছুক্ষণ ছাঁকনির মধ্যে রেখেই জল ভালো করে ঝরিয়ে নেবেন।

মিনিট দশেক সময় পরে একটা সুতির কাপড় বিছিয়ে তার মধ্যে মটরশুটি গুলোকে ঢালতে শুরু করুন।। তারপর এগুলোকে হাত দিয়ে কাপড়ের উপর ছড়িয়ে দিন এবং শুকোতে দিন যাতে এর উপরে কোন জল না থাকে। অন্য আরেকটা সুতির কাপড় নিয়ে মটরশুটি গুলোর উপরে আপনারা হালকা হাতে প্রেস করবেন যাতে উপরের অংশের জলটাও চলে যায়।চার থেকে পাঁচ ঘন্টা এভাবে ফেলে রাখলে কিন্তু মটরশুঁটি থেকে সম্পূর্ণ জল চলে যাবে। সংরক্ষণ করার জন্য এবার কি কি জিনিস আপনারা ব্যবহার করতে পারবেন জেনে নিন।

এই মটরশুটি গুলোকে আপনারা চাইলে জিপ লক ব্যাগে সংরক্ষণ করতে পারেন। যদি আপনাদের বাড়িতে জিপ লক ব্যাগ না থাকে সেক্ষেত্রে একটু চেপা পলিথিনেও এটা রাখা যেতে পারে। পাশাপাশি সংরক্ষণের কাজে আপনারা কাঁচের বোতল ব্যবহার করতে পারেন। প্রথমেই কাঁচের বোতল নিয়ে ভালো করে ধুয়ে মুছে নেবেন। অর্থাৎ কোন রকমের জলীয়ভাব থাকা চলবে না। তারপর মটরশুটি গুলোকে কাঁচের বয়ামে ভরে নিন। এটাকে কোনরকম ডিপ ফ্রিজে রাখার দরকার নেই। নরমাল টেম্পারেচারে বাইরে রাখলেই হবে।

এই কাচের বয়াম ব্যবহার করলে এক বছর পর্যন্ত আপনারা মটরশুটি সংরক্ষণ করতে পারবেন।। যদি পলিথিনে আপনারা মটরশুঁটি সংরক্ষণ করে থাকেন তাহলে এর মুখ রবার দিয়ে আটকে দিতে ভুলবেন না।চাইলে এটা কিন্তু মোমবাতি লাগিয়ে আপনারা সিল করে নিতে পারেন। তবে পলিথিনে ভরলে পুরো প্যাকেটটা ভরবেন না অর্ধেক ভরবেন। ব্যাস স্টেপ বাই স্টেপ এই কয়েকটি পদ্ধতি অবলম্বন করলেই কিন্তু দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আপনারা মটরশুটি ভালো রাখতে পারবেন এবং কোন সমস্যা হবে না। আজকের এই বিশেষ কয়েকটি টিপস আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই আমাদের সঙ্গে কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে পারেন।

Back to top button