একদম অল্প খরচে থেকে আসুন মায়াপুর ট্রি হাউসে, একরাতের রুম ভাড়া এতো সস্তা যা শুনলে হবেন অবাক!

নিজস্ব প্রতিবেদন: পশ্চিমবঙ্গে অবস্থিত অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র আর তীর্থস্থান গুলির মধ্যে রয়েছে মায়াপুর। বছরের বিভিন্ন সময়ে বহু সংখ্যক দর্শনার্থীরা এখানে আসেন। কিন্তু প্রচুর পরিমাণে ভিড় হলে যে সমস্যাটা যে কোন স্থানে দেখা যায় ইদানিং বেশ কয়েক বছর ধরে সেটা কিন্তু মায়াপুরেও শুরু হয়েছে। এখানকার বিভিন্ন হোটেলে বেশ কিছু সময় ধরে যে ঘিঞ্জি পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে তাতে আর পর্যটকদের সুস্থির ভাবে থাকার বিশেষ অবস্থা দেখা যাচ্ছে না।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি একটি বিশেষ তথ্য। যারা সম্প্রতি মায়াপুর ভ্রমণে যেতে চাইছেন এবং সেখানে থাকার কথা ভাবছেন তারা কিন্তু খুব সহজেই মায়াপুর ট্রিহাউসে থাকতে পারেন। কিন্তু অনেকেই এমন রয়েছেন যারা এই ট্রি হাউজ সম্পর্কে কোন তথ্যই জানেন না। কিন্তু আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি একেবারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়লে আপনারা জানতে পারবেন এই ট্রি হাউজের ভেতরটা কেমন এবং এখানে কি কি সুবিধা রয়েছে। শুরুতেই জেনে জেনে নেওয়া যাক আপনারা কিভাবে এই ট্রি হাউসে পৌঁছবেন।

মায়াপুর ট্রি হাউজে কিভাবে পৌঁছবেন?

এই গাছ বাড়িতে আসতে হলে শিয়ালদা থেকে ট্রেনে করে কৃষ্ণনগর নামতে হবে। সেখান থেকে অটো করে আপনাদের যেতে হবে সোদগঞ্জ ঘাট। ফেরি পার হয়েই একটু এগোলে জগন্নাথ মন্দির এবং শ্রীচৈতন্য মঠ। এর ঠিক সামনেই রয়েছে মায়াপুর ঘাট। এখান থেকে কিছুটা এগোলেই জানবী কুঞ্জ আশ্রম বা ট্রি হাউস।

এই ট্রি হাউজের ভেতরে যোগা ক্লাস থেকে শুরু করে বিভিন্ন জিনিস নিয়ে আলোচনা, মিউজিক সবকিছুর ব্যবস্থাই কিন্তু রয়েছে। ট্রি হাউজের ভেতরে এত সুন্দর বসার জায়গা রয়েছে যে যে কোন মানুষের তা পছন্দ হয়ে যাবে। ট্রিহাউজের একটি কটেজে একরাত একজনের থাকার জন্য মাত্র ২৫০ টাকা ভাড়া দিতে হবে।।

পাঠকদের সুবিধার্থে জানিয়ে রাখি যদি আপনারা অগ্রিম বলে দিয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু এই ট্রি হাউজে খাবারের ব্যবস্থাও খুব সহজে পেয়ে যাবেন। গাছ বাড়ির ভেতরে খুব সুন্দর ভাবে একেবারে প্রাকৃতিক নিয়মে বা প্রাকৃতিকভাবে সাজানো হয়েছে।

মাথাপিছু এখানে থাকার জন্য আপনার আড়াইশো টাকা খরচ পড়বে কিন্তু যদি আপনি খাবার খেতে চান তাহলে অবশ্যই কিছু অতিরিক্ত খরচ করতে হবে। যদি আপনি ট্রিহাউসে থাকেন সেক্ষেত্রে প্রত্যেকটি হাউসের নিচে আপনি পেয়ে যাবেন সেখানকার শৌচাগার। বাথরুমে কিন্তু আধুনিক সমস্ত ব্যবস্থাই রয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন- https://youtu.be/_LeYhL0ZTGI

সব থেকে ভালো ব্যাপার এই গাছ বাড়িতে থাকলে আপনি যে মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন সর্বদা সেটা কিন্তু কোন রকমের ফাইভস্টার হোটেলে গিয়েও পারবেন না। সুতরাং যদি মায়াপুর ভ্রমণে গিয়ে এবার আপনি এই গাছ বাড়িও সাথে ভ্রমণ করতে চান বা থাকতে চান তবে অবশ্যই আর দেরি করবেন না। বুকিং এর জন্য 9735727398/9382038525 এই দুটি নম্বরে যোগাযোগ করে নিতে পারেন।

Back to top button