উচ্ছে খেতে বিরক্তি লাগে! এবার থেকে খুব সহজেই এইভাবে রান্না করে দেখুন উচ্ছে, খাবেন পুরো চেটেপুটে

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোলা এমন একটি সবজি যা উপকারী হলেও অনেকেই কিন্তু খেতে পছন্দ করেন না। বিশেষ করে তেতো ভাবের কারণে এই করলা অনেক ক্ষেত্রেই মানুষ খাওয়া থেকে বিরত থাকেন। তবে আজ আমরা এমন একটি পদ্ধতি শেয়ার করে নেব যাতে খুব সহজেই কিন্তু করলার সবজিও আপনার কাছে উপাদেয় হয়ে উঠবে। চলুন তাহলে কিভাবে আপনারা রেসিপিটি বানাবেন সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

এই রেসিপিটি বানানোর জন্য প্রথমে ৪০০ গ্রাম করলা নিয়ে আপনাদের ভালোভাবে ধুয়ে শুকিয়ে নিতে হবে। তারপর এর দুদিকের অংশটাকে সামান্য কেটে দিন। এবার ছোট ছোট টুকরো করে করলা কেটে নেওয়ার পর একটা পাত্রে নিয়ে নিন। তারপর তেতো ভাব দূর করার জন্য এর মধ্যে সামান্য পরিমাণে লবণ, লেবুর রস আর হলুদ গুঁড়ো দিয়ে মাখিয়ে নিন। কিছুক্ষণ মেখে নেওয়ার পর বেশি করে জল দিয়ে আপনাদের ভালোভাবে করলাগুলোকে আরো একবার ধুয়ে নিতে হবে। এবার গ্যাসে একটা প্যান বসিয়ে আপনাদের চটপট তেল দিয়ে করলাগুলোকে ভেজে নিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে এগুলোকে আলাদা পাত্রে তুলে রেখে ওই তেলের মধ্যেই পেঁয়াজ কুচি যোগ করুন। ভাজা হয়ে গেলে পেঁয়াজগুলোকেও তুলে রাখবেন।

এবার প্যানের মধ্যে থাকা তেলে কিছুটা পরিমাণ জিরে, হাফ চামচ মৌরি এবং সামান্য পরিমাণে হিং দিয়ে দিন। একটু নাড়াচাড়া করে একদম মিহি করে কেটে নেওয়া পেয়াজ এতে যোগ করে মিশিয়ে নিন। একটু কাঁচা লঙ্কা কুচি যোগ করে নাড়াচাড়া করবেন। যখন পেঁয়াজ কিছুটা সোনালী বর্ণ ধারণ করবে তখন এর মধ্যে আদা রসুন বাটা যোগ করে দেবেন। এবার একে একে গুঁড়ো মসলা হিসেবে হলুদ, লাল লঙ্কার গুঁড়ো ও ধনে গুঁড়ো যোগ করে দিন। ভালো করে মসলা কষিয়ে নেবেন এবারে।

মসলা একটু কষে গেলে এর মধ্যে দুটো টমেটোর পিউরি যোগ করে দিন। টমেটো তাড়াতাড়ি সেদ্ধ করার জন্য স্বাদমতো লবণ যোগ করুন। টমেটো যখন মোটামুটি রান্না হয়ে যাবে তখন সামান্য পরিমাণে জল এতে যোগ করে দিন। লো ফ্লেমে কিছুক্ষণ এটাকে ঢেকে রান্না করতে হবে। নির্ধারিত সময় পরে ঢাকনা খুলে এর মধ্যে আগে থেকে ভেজে রাখা পেঁয়াজ আর করলা যোগ করে বেশ কিছুক্ষন নাড়াচাড়া করবেন।২ থেকে ৩ মিনিট ঢাকনা চাপা দিয়ে কুক করে গরম গরম রেসিপিটি নামিয়ে পরিবেশন করুন।

Back to top button