চলন্ত ট্রাকের সামনে আচমকা হানা হাতির, ঘটলো বড়সড় বিপত্তি, ভিডিও দেখে শিউরে উঠলো নেটবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যার সাহায্যে খুব সহজেই বাড়িতে বসে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের সাথে যোগাযোগ করা বা বন্ধুত্ব স্থাপন করা যায়। প্রতিদিন মানুষের মধ্যে এই প্লাটফর্মের জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে। তবে এটাকে জনপ্রিয়তা না বলে আসক্তি বললেও কিন্তু খুব একটা ভুল হবে না। ৮ থেকে ৮০ সকলেই এখন সোশ্যাল মিডিয়ার বাসিন্দা। ঘুম থেকে ওঠা থেকে শুরু করে ঘুমোতে না যাওয়ার সময় পর্যন্ত এক ঝলক যেন মুঠোফোনে বন্দি সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে চোখ না রাখলে মানুষের চলতেই চায় না।

সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ্লিকেশন বলতে আমরা প্রধানত যেগুলিকে বুঝি তা হল ফেসবুক whatsapp, instagram, টুইটার প্রভৃতি। এই প্রত্যেকটা অ্যাপ্লিকেশনে খুব সহজে নাম এবং ইমেইল দিয়ে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে একাউন্ট খোলা যায়। এখনকার দিনে এমন কোন মানুষ হয়তো নেই যার কোন সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল নেই।

সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সেলিব্রিটি সবাই কিন্তু এখানে রয়েছেন। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই আমরা পেয়েছি রানু মন্ডল থেকে শুরু করে অন্যান্য প্রচুর প্রতিভার খোঁজ। কিছুদিন আগেই এই নেট মাধ্যমেদরুন ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছিলেন বীরভূমের সাধারণ বাদাম বিক্রেতা ভুবন বাবু। রাতারাতি সেলিব্রেটি হয়ে এই ব্যক্তি নিজের কাচা বাড়িকে পাকা বাড়িতে পরিণত করে ফেলেন।

জীবজন্তু থেকে শুরু করে মানুষের অনেক অদ্ভুত কর্মকাণ্ড এখানে ভাইরাল হয়ে ওঠে। যেমন সম্প্রতি একটি হাতির ভিডিও এখানে উঠে এসেছে। যদিও এটা কোন অদ্ভুত আচরণ নয় একটি বিরল ঘটনার দৃশ্য। দেখা যাচ্ছে আচমকাই একেবারে খোলা রাস্তার উপর উঠে এসেছে একটি বিশাল আকৃতির হাতি।

রাস্তা দিয়ে চলন্ত একটি ট্রাককে আচমকাই এই হাতিটি আটকে দেয় এবং ক্রমাগত তার চালকের আসনে বসে থাকা ব্যক্তিকে আক্রমণ করার চেষ্টা করে। এভাবে বেশ কয়েক মিনিট চলার পরে যখন কেউ বুঝতে পারছেন না যে কিভাবে হাতিটির আক্রমণ থেকে বাঁচবেন, তখন আচমকাই হাতিটি আবারও ট্রাক ছেড়ে সামনের দিকে এগিয়ে আসে।

ভাইরাল এই ভিডিওটি দেখে মনে করা হচ্ছে সম্ভবত খাবারের খোঁজে হাতিটি জঙ্গলের বাইরে বেরিয়ে এসেছিল। কিন্তু তারপর আচমকা এসে কেন ফেরত চলে গেল সেটা যদিও বোঝা যায়নি ।জানা যাচ্ছে এটি ঝাড়গ্রাম নয়াগ্রাম জঙ্গলমহল এলাকার একটি ভিডিও। এই অঞ্চলে কিন্তু প্রায় সময় হাতির আক্রমণের খবর শুনতে পাওয়া গিয়েছে এর আগেও। NSS নামের একটি জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল থেকে এই ভাইরাল ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছে যা এখনো পর্যন্ত দেখে নিয়েছেন প্রায় ৩ মিলিয়ন মানুষ। প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটি লাইক কমেন্ট করে দিতে ভুলবেন না।

Back to top button