মাত্র ১০০ টাকায় পেয়ে যান ব্র্যান্ডেড কোম্পানির কম্বল! এখান থেকে কিনে শুরু করুন ব্যবসা, অল্পদিনেই হবেন প্রচুর লাভবান

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতকাল পড়তে না পড়তেই কিন্তু বাজারে প্রচুর পরিমাণে গরম পোশাক থেকে শুরু করে কম্বলের চাহিদা বেড়েছে। সাধারণত পূর্ববর্তী সময়ে যেহেতু একটু হলেও শীতের পরিমাণ বেশি ছিল তাই বেশিরভাগ বাড়িতেই লেপ ব্যবহার করা হতো। তবে এখন আর সেই অবস্থা নেই। হালকা ঠান্ডার মধ্যে বাচ্চা থেকে বড় সকলেই কিন্তু কম্বল ব্যবহার করার চেষ্টা করেন। বাজারে নানান ধরনের দামের মধ্যে কিন্তু এই কম্বল পাওয়া যেতে পারে। গুণগত মানের কিছু পার্থক্য থাকলেও এগুলোর বাজার চাহিদার কোন শেষ নেই তা স্পষ্টই বলা যায়।

মোটামুটি শীত শুরুর আগে থেকে মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত প্রচুর পরিমাণে কম্বল জাতীয় জিনিস বিক্রি হয়ে থাকে। যারা আপাতত বেকারত্বের সমস্যায় ভুগছেন এবং কিভাবে অর্থ উপার্জন করা যায় তা নিয়ে চিন্তাভাবনা করছেন, সেই সমস্ত মানুষরা কিন্তু সহজেই এই কম্বল পাইকারি দামে সংগ্রহ করে ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন। এটা কিন্তু এই সময়ের একটা খুব লাভজনক ব্যবসা। যদি আপনার ব্যবসা দাঁড়িয়ে যায় সেক্ষেত্রে কিন্তু আর কোন চিন্তা করতে হবে না। তবে যেহেতু এই ব্যবসাটি শুধুমাত্র সিজনের উপর নির্ভরশীল, তাই আপনাকে অন্যান্য পোশাক-আশাক যেমন শাড়ি, কুর্তি, নাইটি প্রভৃতির কালেকশনও কিন্তু পরবর্তীতে নিয়ে আসতে হবে।

কিভাবে ব্যবসা শুরু করবেন?

ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনাকে প্রথমেই পাইকারি মার্কেট থেকে কম্বল এবং অন্যান্য শীতের গরম পোশাক সংগ্রহ করে নিতে হবে। আজকাল কিন্তু নানান ধরনের কাপড় আর কোয়ালিটির মধ্যে কম্বল পাওয়া যায়। তিন বছরের বাচ্চা থেকে শুরু করে সব সময় ব্যবহারের জন্য আপনারা কম্বল পেয়ে যাবেন। মোটামুটি পাইকারি মার্কেটে ৯০ টাকা থেকে এগুলি বিক্রি করা হয়ে থাকে। তবে লোকাল মার্কেটে প্রফিট মার্জিন রেখে প্রায় ৩০০ – ৪০০ টাকা বা তারও বেশি দামে এগুলো বিক্রি করা হয়। সুতরাং আপনারা যদি পণ্য সংগ্রহ করে হাতে 10 থেকে 12 হাজার টাকা নিয়ে এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন সে ক্ষেত্রে আর কোনো রকম চিন্তা করতে হবে না।

খুব ভালোভাবে আপনার ব্যবসা দাঁড়িয়ে যাবে যদি বাজারের কোন একটি ভালো জায়গায় আপনারা দোকান দিতে পারেন। অনেক ক্ষেত্রেই উপযুক্ত জায়গা না থাকার জন্য কিন্তু ব্যবসা দাঁড়াতে পারে না। সুতরাং আপনাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে আপনি যেখানে দোকান দিচ্ছেন সেই জায়গাতে জনসমাগম কতখানি!

আজ আমরা আপনাদের সাথে এমন একটি ঠিকানা শেয়ার করে দেব যেখানে খুব সহজেই কিন্তু মাত্র ১০০ টাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন কোয়ালিটির কম্বল আপনারা পেয়ে যাবেন। একেবারে ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে তিন বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের জন্য যে বিশেষ কম্বল ব্যবহার করা হয় তা আপনারা পেয়ে যাবেন মাত্র ১৫০ টাকায়। শুধুমাত্র কম্বল নয়, এই সমস্ত দোকানগুলোতে কিন্তু আপনারা শীতের প্রয়োজনীয় আরো নানান ধরনের জিনিস পাবেন যা বাজারে দুর্দান্ত প্রফিট মার্জিন রেখে বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করা যেতে পারে।

পাইকারি দরে পণ্য কিনে ব্যবসা করার সঠিক ঠিকানা:

যদি পাইকারি দরে আপনারা পণ্য কিনে ব্যবসা শুরু করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে শিয়ালদহ থেকে হাওড়া গামী বাস ধরতে হবে এবং নেমে যেতে হবে বড়বাজারের এলাকায়। এখানকার মার্কেটে আপনারা প্রায় প্রত্যেকটি দোকানেই কিন্তু শীতের বিভিন্ন জিনিসের ব্যাপক সম্ভার পাবেন যেগুলোর দাম পুরোটাই পাইকারি। সব থেকে বড় ব্যাপার এখানে ১ পিস থেকে শুরু করে নিজেদের ইচ্ছে মতন যতো পণ্য আপনারা চাইবেন কিনে নিয়ে যেতে পারেন।।

যেহেতু নির্দিষ্ট কোন দোকান নেই তাই আলাদা করে আর ফোন নম্বর উল্লেখ না করে ঠিকানা উল্লেখ করে দিলাম। যদি আপনাদের কোথাও বুঝতে অসুবিধা হয় সেক্ষেত্রে আমাদের প্রতিবেদনের সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন। সত্যি কথা বলতে গেলে পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে এত কম দামে কম্বলের পাইকারি মার্কেট হয়তো আর কোথাও নেই। নিজেরাই আসুন এবং সমস্ত দিক যাচাই করে আমাদের সঙ্গে অভিজ্ঞতা শেয়ার করে নিন। যদি আগ্রহী থাকেন তাহলে শীতের সিজন শেষ হওয়ার আগেই কিন্তু ব্যবসার কাজ শুরু করে দিন।

Back to top button