কলকাতার এই বাজারে একদম হাফ দামে পান ক্যামেরা, ল্যাপটপ থেকে মোবাইল, যা কল্পনারও বাইরে!

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমান মূল্য বৃদ্ধির বাজারে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় জিনিস কিন্তু আর সুলভ মূল্যে পাওয়া যায় না। লক্ষ্য করে দেখবেন আমাদের লোকাল মার্কেটে টিভি রেডিও থেকে শুরু করে ফ্রিজ ওয়াশিং মেশিন প্রভৃতি জিনিস গুলির দাম যেন ঝড়ের গতিতে বেড়ে চলেছে। যার ফলস্বরূপ সাধারণ মানুষের পক্ষে কিন্তু এগুলো বাজেটের বাইরে চলে যায়। এমতাবস্থায় অনেকেই কম মূল্য এই জিনিসগুলো কিভাবে কেনা যায় অথবা ভালো সেকেন্ড হ্যান্ড জিনিস কোথায় কেনা যায় এই ব্যাপারে খোঁজ করে থাকেন।

এই কম মূল্যের জিনিস বা সেকেন্ড হ্যান্ড জিনিসের জন্য আপনারা প্রায় অনেকেই কিন্তু কলকাতার চোর বাজার বা চাঁদনী চক মার্কেটের কথা শুনেছেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা এই মার্কেট নিয়েই আপনাদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করতে চলেছি। যদি আপনারাও সুলভ মূল্যে বিভিন্ন দামি জিনিস কেনার জন্য এই মার্কেটে আসতে চাইছেন সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আগে আমাদের এই প্রতিবেদনটা মনোযোগ সহকারে পড়ুন এবং এই গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো জেনে নিন।

কলকাতার চাঁদনী চক মার্কেট চোর বাজার হলো এমন একটি জায়গা যেখানে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক গ্যাজেট থেকে শুরু করে অন্যান্য অনেক জিনিস আপনারা একেবারে সুলভ মূল্যে বা কম দামের মধ্যে পাবেন। শুধুমাত্র তাই নয় এখানে এমন বহু জিনিস পাওয়া যায় যেগুলো সেকেন্ড হ্যান্ড হলেও কিন্তু ক্যাশমেমো তৈরি করে দেওয়া হয়।। মোটামুটি ২০০ টাকা থেকে শুরু করে যতদূর আপনারা চাইবেন এখানে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক গেজেট বা জিনিস আপনারা সহজেই পেয়ে যাবেন।

টিভি ফ্রিজ থেকে শুরু করে হোম থিয়েটার বা মোবাইল হেডফোন সবকিছু বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে এখানে। ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট থেকে বিভিন্ন লাটের মাল কিনে নিয়ে আসে সাধারণত এখানে বিক্রি করা হয়ে থাকে। তবে যদি আপনারা এখানে জিনিস কেনার কথা ভাবছেন তাহলে কিছু বিশেষ ব্যাপারে আপনাদের অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে।

চোর বাজারে জিনিস কিনতে গেলে আপনাদের যে বিষয়গুলি প্রথমে লক্ষ্য রাখতে হবে যদি আপনি ইলেকট্রনিক গ্যাজেট কিনছেন সেটা ঠিকঠাক ভাবে কার্যকরী কিনা অবশ্যই কেনার সময় আপনাকে চালিয়ে দেখে নিতে হবে। যে সমস্ত দোকানে মূল্য নির্ধারিত করা রয়েছে সেখানে গিয়ে আপনি কিন্তু কোন রকমের দরদাম করতে পারবেন না। অনেক ক্ষেত্রেই এখানে এমন অনেক ভুয়ো ব্যবসায়ী থাকেন যারা ২০০ টাকার জিনিস ১২০০ টাকায় বিক্রয় করে থাকেন।

এই সমস্ত মানুষদের থেকে কিন্তু আপনাদের অবশ্যই সাবধানে থাকতে হবে। কারণ যদি আপনারা বারংবার জিনিস ঘাঁটাঘাটি করে মাল না নেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু ব্যবসায়ীরা আপনাদের উপর চড়াও হতে পারে। সুতরাং কোন জিনিস কেনার আগে দূর থেকে সেটাকে ভালোভাবে দেখে নিয়ে তবেই সে জিনিসটা যাচাই করবেন। পোশাক আশাক থেকে শুরু করে আপনার ব্যবহার দেখেই এখানকার ব্যবসায়ীরা কিন্তু দাম নির্ধারণ করে থাকে।

সুতরাং খুব বেশিক্ষণ তাদের সাথে কথা বলা কিন্তু যাবে না। আপনি যদি কোন জিনিস অনেকক্ষণ দেখে না নেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু জোর জবরদস্তি করা হতে পারে আপনাকে সেটা নেওয়ার জন্য। তাই শুরুতেই আপনার কি ধরনের জিনিস প্রয়োজন এবং আপনার বাজেট কত সেই বিষয়ে দোকানদারকে একটা স্পষ্ট ধারণা দিয়ে দেবেন যাতে পরে সমস্যা না হয়।।

যারা বহু দূর দূরান্তের জায়গা থেকে চোর বাজারে আসার কথা ভাবছেন তাদের ক্ষেত্রে একটা কথা বলবো যদি আপনারা দুই থেকে তিন হাজারের মধ্যে জিনিস নিতে চান তাহলে অবশ্যই লোকাল মার্কেট থেকে কিনে নিতে পারেন। কারণ এতো দূর যাওয়া আসা থেকে শুরু করে সব মিলিয়ে আপনার যা খরচ হবে তাতে খুব একটা টাকা কিন্তু আপনি সাশ্রয় করতে পারবেন না। তবে আপনি যদি কোন বড় অ্যামাউন্টের জিনিস কিনছেন যেটা আপনার বাজেটের বাইরে তাহলে অবশ্যই আপনি এখানে এসে সেটা কিনতে পারেন।

শুধুমাত্র ল্যাপটপ মোবাইল ক্যামেরা প্রভৃতি কেনা কাটা নয় এই সমস্ত জিনিসগুলি সার্ভিসিং এর জন্যও কিন্তু চাঁদনী চক মার্কেট বিশেষভাবে খ্যাত। লোকাল মার্কেটের যেকোন দোকানে আপনার এই সমস্ত জিনিসগুলো ঠিক করতে প্রচুর পরিমাণে খরচ হতে পারে। তবে এই চোর বাজারে অত্যন্ত অল্প খরচে আপনারা যে কোন ইলেকট্রনিক জিনিস সার্ভিসিং করিয়ে নিতে পারবেন। যদি আপনি জিনিস কেনার জন্য আসছেন সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে একটু ভালোভাবে ভাবনা চিন্তা করে সমস্ত দিক দেখে শুনে নিতে হবে।

কিন্তু সার্ভিসিং এর কথা যদি বলা হয় তবে আপনি একদম চোখ বুঝে এখানে এসে আপনার কাজ করিয়ে যেতে পারেন। আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন আপনাদের কেমন লাগলো তা আমাদের জানাতে ভুলবেন না এবং এই ধরনের বিভিন্ন জায়গার সম্পর্কে তথ্য জানতে আমাদের পোর্টালের পাতায় নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button