কলকাতার একদম কাছেই দুর্দান্ত লোকেশনে জলের দামে পান জমি! না দেখলে মিস করবেন গ্যারান্টি

নিজস্ব প্রতিবেদন: নিজেদের বসবাসের জন্য বাড়ি হোক অথবা কোন প্রজেক্ট কোনটাই কিন্তু জমির সাহায্য ছাড়া সম্ভব নয়। এবার ঘনবসতির এই সময়ে ভাল লোকেশনে জমি পাবেন কোথায়? আপনাদের মত অনেকেই তো জমির খোঁজ করছেন! পাঠক বন্ধুদের উদ্দেশ্যে বলবো আপাতত আর কিছু করতে না পারলেও আমাদের প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

প্রতিনিয়ত এখানে বিভিন্ন জমি আর বাড়ি বিক্রির বিজ্ঞাপন আমরা আপডেট সহকারে শেয়ার করে থাকি। আশা করছি আপনাদের নিজেদের স্বপ্নের ঠিকানা বেছে নিতে এই প্রতিবেদন গুলো অনেকটাই সহায়তা করবে। আজও আমরা নিয়ে চলে এসেছি কলকাতা নিকটবর্তী একটি লোকেশনে দুর্দান্ত রেসিডেন্সিয়াল ল্যান্ড এর খোঁজ।চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে আমাদের আজকের লোকেশানে যাওয়া যাক।

চাম্পাহাটি রেলওয়ে স্টেশন থেকে কমবেশি ৪.৫ কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যেই রয়েছে ১০ কাঠা জমি। এটি কিন্তু শালি জমি। জমিটির লাগোয়া ২২ ফুটের একটি রাস্তা রয়েছে। এই জমির খুব কাছেই ইলেকট্রিকের কানেকশন আপনারা পেয়ে যাবেন সহজেই। যারা কম বাজেটের মধ্যে নিরিবিলি আর সুন্দর গ্রামীণ পরিবেশে বসবাস করতে চান তাদের জন্য এই জমি কিন্তু একেবারেই আদর্শ বলা যায়। এই জমি থেকে পিচ রাস্তার দূরত্ব মাত্র ২৫০ মিটার।

এবার আসুন এই জমির চারপাশের যোগাযোগ ব্যবস্থা একটু ভালোভাবে দেখে নেওয়া যাক। চাম্পাহাটি রেলওয়ে স্টেশন থেকে কমবেশি এই জমি যেমন সাড়ে ৪ কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে রয়েছে, ঠিক তেমনভাবেই সোনারপুর জংশন রেলওয়ে স্টেশন থেকে এই জমি মাত্র ২২ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত। এছাড়াও এখান থেকে খুব সামান্য দূরত্বের মধ্যেই আপনারা পেয়ে যাবেন ব্যাংক, এটিএম, দিল্লি পাবলিক স্কুল এবং ইস্পাত কো-অপারেটিভ হসপিটাল।

মোটামুটি ১০ মিনিটের দূরত্বের মধ্যেই সমস্ত প্রয়োজনীয় জিনিস আপনারা পেয়ে যাবেন। মাত্র ৮ থেকে ৯ মিনিটের দূরত্বের মধ্যেই আপনারা পেয়ে যাবেন তেমাথা বাজার এবং অটোস্ট্যান্ড। প্রতি কাঠা এই জমির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১.৯৫ লাখ টাকা। জমিটি কিনতে আগ্রহী থাকলে বা অন্যান্য কোন তথ্য জানতে চাইলে আপনারা নিচের দেওয়া নম্বরে যোগাযোগ করে নিতে পারেন।
Call or whatsapp at :9073145145.

Back to top button