সিনেমাপ্রেমীদের জন্য সুখবর! ঐন্দ্রিলার শোক কাটিয়ে ফের মানুষের সামনে উপস্থিত হলেন সব্যসাচী, রইলো সেই ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন: ‘জন্মিলে মরিতে হবে,অমর কে কোথা হবে’-দুনিয়ার কঠোর সত্যই এটা। এর প্রমাণ প্রায় মাসখানেক আগে আমরা মাত্র 24 বছর বয়সী ঐন্দ্রিলা শর্মার ক্ষেত্রে পেয়েছি। হাজার চেষ্টার পরেও তাকে আটকে রাখা যায়নি। পরপর দুবার মারন রোগ ক্যান্সারের সাথে জয়লাভ করেও শেষ পর্যন্ত ব্রেন স্টোকে আক্রান্ত হয়ে চলে যান ঐন্দ্রিলা। তার অনুরাগীরা সকলেই ভেবেছিলেন হয়তো এবারও ঠিক ফিনিক্স পাখির মতন ফেরত আসবেন নায়িকা। তবে তা কিন্তু আর শেষমেষ হয়ে উঠল না।

অভিনেত্রীর মৃত্যুর পর এক মাস কেটে যাওয়ায় ধীরে ধীরে অনেকটাই স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন তার পরিবার অর্থাৎ মা-বাবা এবং দিদি। বহুদিন পর্যন্ত তার প্রেমিক তথা বিশেষ বন্ধু সব্যসাচী চৌধুরীও কিন্তু ছিলেন অন্তরালে। তবে এবার ধীরে ধীরে মহামায়া কাটিয়ে তিনিও আসলেন ক্যামেরার সামনে। ঐন্দ্রিলার মৃত্যুর ঠিক আগের দিনেই নিজের সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল বন্ধ করে দিয়েছিলেন সব্যসাচী। মৃত্যুর পর শুধুমাত্র শ্মশানের দাহকার্য ছাড়া তাকে আর ক্যামেরার সামনে দেখা যায়নি। এমনকি নিজের কোন বক্তব্য বা সাক্ষাৎকারও দিতে চাননি অভিনেতা। প্রেমিকার মৃত্যু কোথাও না কোথাও যেন তাকে অবশ করে দিয়েছিল।

সম্প্রতি প্রায় একমাস পরে দেখা পাওয়া গিয়েছে সব্যসাচী চৌধুরীর। তবে সেটাকে ঠিক দেখা না বলে এক ঝলক বললেও ভুল হবেনা।দীর্ঘদিন সবার থেকে বিচ্ছিন্ন থাকায় অনেকেই ব্যস্ত হয়ে উঠেছিলেন অভিনেতার খোঁজ নিতে। এই সমস্ত চেষ্টার মাঝেই তার খোঁজ পাওয়া গেল অভিনেতার রেস্তোরাঁতে। ঐন্দ্রিলা শর্মার মৃত্যুর কিছুদিন আগেই জনপ্রিয় অভিনেতা সৌরভ দাসের সাথে অংশীদারিত্বের মালিকানায় ‘হোদলস’ নামের একটি রেস্তোরা খুলেছিলেন সব্যসাচী চৌধুরী। সম্প্রতি বছর শেষের উদযাপনে সেখানেই দেখা গেল তাকে। তবে অভিনেতাকে দেখে এক ঝলকে চিনতে পারেননি কেউই। মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই যেন রীতিমত কয়েক দফা পরিবর্তন হয়ে গিয়েছে তার।

সোশ্যাল মিডিয়াতে যে কয়েকটি ছবি বা ভিডিও দেখা যাচ্ছে তাতে সব্যসাচী চৌধুরীকে সম্পূর্ণ ক্লিন সেভে দেখা যাচ্ছে। পাশাপাশি তিনি যে নিজের আরও কিছু পরিবর্তন নিয়ে এসেছেন সেটাও বোঝা যাচ্ছে। অনুরাগীরা অনেকেই প্রশ্ন করেছেন এখনো কি রেস্তোরাঁর কাজে ঠিক একই রকম ভাবে রয়েছেন অভিনেতা? এই প্রসঙ্গে তার দুই পার্টনার অর্থাৎ সৌরভ দাস এবং দিব্য জানিয়েছেন,সব্যসাচী সবসময় রেস্টুরেন্টের মেনু ঠিক করে।

সৌরভ এবং দিব্য তাকে নিজের মত সেরে ওঠার জন্য সময় দিচ্ছে। সূত্রের খবর রয়েছে খুব শীঘ্রই পর্দার একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্রে দেখা মিলতে চলেছে অভিনেতার। আশা করা যাচ্ছে ধীরে ধীরে অভিনেত্রীর শোক কাটিয়ে আবারো নিজের স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবেন তিনি। কাজটা যদিও সহজ নয়, তবে আমরা সকলে মিলে তার জন্য প্রার্থনা করতেই পারি।।

Back to top button