ছাদে বা উঠোনে এই সহজ ঘরোয়া পদ্ধতিতে সামান্য পাত্রের মধ্যেই করুন রসুন চাষ, অল্পদিনেই হবে দুর্দান্ত ফলন

নিজস্ব প্রতিবেদন: আমাদের রান্নাঘরের যে সমস্ত জিনিস গুলি প্রতিনিয়ত ব্যবহার করা হয় তার মধ্যেই রয়েছে রসুন। খুব সহজেই কিন্তু বাড়িতে আপনারা এটিই চাষ করে নিতে পারেন।স্বাদে-গন্ধে কিংবা ভেষজ উপকারিতার নিরিখে এই মসলাটি অদ্বিতীয়।প্রাত্যহিক জীবনে এটি অপরিহার্য বলা চলে।তাই মসলাটি,নির্ঝঞ্ঝাটে বাড়ির ছাদ বা বারান্দায় চাষ করতে অসুবিধে কোথায়! তবে এর জন্য আপনাকে অবশ্যই নির্দিষ্ট কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। তা না হলে কিন্তু কখনোই সঠিক ভাবে চাষ করা সম্ভব নয়।

রসুন গাছ উৎপাদন করার জন্য আপনারা রসুনের কন্দের কোয়া ব্যবহার করবেন এই পদ্ধতিতে। প্রথমেই টব নিয়ে তার মাটিতে একটু গর্ত করে নেবেন। এরপর রসুনের মুখ বের হয়ে থাকবে এমন অবস্থায় আপনাদের কোয়া বপন করে দিতে হবে। একটি থেকে অপরটি মোটামুটি দুই থেকে তিন সেন্টিমিটার দূরত্ব বজায় রেখে লাগাবেন। যে জায়গায় আলো আর বাতাস দুটোই রয়েছে এরকম জায়গাতে টবগুলোকে রেখে দেবেন।

রসুন গাছ তৈরি করার জন্য বাড়িতে থাকা প্লাস্টিক বা মাটির পাত্র নিতে পারেন। তবে খুব বেশি বড় আকারের কন্টেনার ব্যবহার করবেন না। পাত্রের তলায় অবশ্যই বেশ কয়েকটি ছিদ্র করে নেবেন । ছিদ্র গুলি মার্বেল অথবা কাঠের টুকরো দিয়ে ঢাকা রাখবেন যাতে মাটি বেরিয়ে না যায়।একেকটি টবে ১০-১৫টি রসুন গাছ চাষ করা সম্ভব। রসুন গাছের চাষ করার জন্য আপনাদের অর্গানিক সয়েল এবং ভার্মিং কম্পোস্ট ব্যবহার করতে হবে। ৬০% ভার্মিকম্পোস্ট ও ৪০% অর্গানিক সয়েল মিশিয়ে ভালো করে ঝুরঝুরে করে নেবেন।

এরপর বপণের জন্য আপনাকে বড়ো শল্কযুক্ত কন্দের রসুন ব্যবহার করতে হবে। রসুন থেকে কোয়াগুলো আলাদা করে নেবার পরে আলতো করে এর ভোতা অংশটি মাটিতে প্রবেশ করাতে হবে। সমস্ত রসুনগুলো বপন করা হয়ে গেলে আপনাদের জল প্রয়োগের জন্য একটি স্প্রে বোতল ব্যবহার করতে হবে। শুধুমাত্র এই অংশের মাটি ভিজে রাখার চেষ্টা করবেন। তাই অতিরিক্ত জল প্রয়োগ করার দরকার নেই। কারণ অতিরিক্ত জল প্রয়োগ করলে রসুন পচে যেতে পারে।

রসুন গাছে সার প্রয়োগ করতে গেলে আপনারা ইউরিয়া অথবা টিএসপি প্রভৃতি সার ব্যবহার করতে পারেন। এই সারগুলো বাম্পার ফলনের জন্য আপনাকে সাহায্য করতে পারবে । তবে গাছকে সতেজ রাখার জন্য অবশ্যই খেয়াল করবেন যাতে মাটির উপরে জল না জমে যায়।পার্পল ব্লচ, স্মাট রোগ রসুন গাছের কমন রোগের মধ্যে পড়ে। এগুলোর মোকাবিলার জন্য রোভিরাল ও রিডোমিন স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই কিন্তু গাছ পরিণত হয়ে যাবে। সবুজ কান্ডের চারা যখন মোটামুটি বাদামী বর্ণ ধারণ করবে তখন খুব সহজেই রসুন আপনারা তুলে ব্যবহার করতে পারেন। ব্যাস এভাবে খুব সহজ পদ্ধতিতে আপনারা সহজেই রসুন চাষ করে নিতে পারেন।

Back to top button