ছাদে বা উঠোনে এই সহজ গোপন ট্রিকসে করুন আদা চাষ, মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই পাবেন দুর্দান্ত ফলন

নিজস্ব প্রতিবেদন: আদা এমন একটি সবজি যা কমবেশি অনেক রান্নার কাজেই ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বছরের সবসময় কিন্তু এটি বাজারে সহজেই কিনতে পাওয়া যায়। তবে মূল্য বৃদ্ধির বাজারে অন্যান্য জিনিসের মতন আদার দামও কিন্তু প্রায় সময় বেড়ে গিয়ে থাকে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে তাই আপনাদের সাথে টবে বা বস্তায় আদা চাষ করার সম্পূর্ণ পদ্ধতি শেয়ার করে নিতে চলেছি। যারা এই চাষ নিয়ে আগ্রহী রয়েছেন তারা অবশ্যই আমাদের প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়ে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

সাধারণত ফেব্রুয়ারি থেকে মে মাস হল আদা বসানোর উপযুক্ত সময়। মোটামুটি এই সময় দেখবেন আদা থেকে এক ধরনের কল বেরোয়। প্রথমেই আপনাদের আদা গুলোকে ভেঙে ছোট ছোট পিস করে নিতে হবে। আদা গাছ বসানোর জন্য আপনারা ফলের ক্রেট নিতে পারেন, অথবা ব্যবহার করতে পারেন সিমেন্টের বস্তা বা বড় কোনো টব। যেখানে আদা গাছ বসাতে চান সেখানে প্রথমেই আপনাদের মাটি তৈরি করে নিতে হবে।

তার জন্য নিয়ে নিতে হবে 40% বেলে মাটি। যদি আপনার কাছে বেলে মাটি না থাকে সে ক্ষেত্রে সাধারণ মাটির সাথে সমপরিমাণ বালি মিশিয়ে নিতে পারেন। সাথে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে ২০ শতাংশ কম্পোস্ট সার বা ভার্মিং কম্পোস্ট। আপনারা চাইলে এই পরিবর্তে গোবর সার বা পাতাসার ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও নিয়ে নিতে হবে 10% নিমখোল, 5% হাড়ের গুঁড়ো, 5% সি- উইড এবং 10% কোকোপিট। সমস্ত উপাদান ভালোভাবে মিশিয়ে টব পূর্ণ করে ফেলুন।

পরবর্তী ধাপে মোটামুটি দুই থেকে তিন ইঞ্চি গ্যাপ রেখে আপনাদের আদা গুলো বসিয়ে দিতে হবে। আদা বসানোর পর কোকোপিট দিয়ে এটার উপরে একটা লেয়ার তৈরি করে দেবেন।। এভাবে মালচিং করে দিলে তবে একদম আগাছা হবে না। আদা বপন করার পরে আপনাদের ভালোভাবে জল দিয়ে দিতে হবে। এরপর থেকে পাঁচ থেকে ছয় দিন অন্তর জল দিলেই কাজ হবে। এমন জায়গায় টব বা বস্তা গুলোকে রাখবেন যেখানে 6 থেকে 8 ঘণ্টার রোদ থাকে। পরবর্তী 10 থেকে 12 দিনের মধ্যেই কিন্তু দেখবেন চারা বেরিয়ে গিয়েছে।

সঠিক পরিমাণে জলের প্রয়োগ করে এবং ঠিকঠাক যত্ন করলে গাছ কিন্তু ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করবে। মোটামুটি ৮ থেকে ৯ মাসের মধ্যেই গাছ সম্পূর্ণ বেড়ে দেখবেন ধীরে ধীরে শুকিয়ে যাচ্ছে। গাছ এরকমভাবে নেতিয়ে গেলেই আপনারা বুঝবেন আদা তোলার সময় হয়ে গিয়েছে। যদি এই সময়ের আগে গাছে কোন রকমের পাতা কুঁকড়ে যাওয়া বা পোকামাকড়ের উপদ্রব হয় সেক্ষেত্রে মাঝে মাঝে হলুদ গুঁড়ো ছড়িয়ে দিতে পারেন। এতে সমস্ত সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে এবং সময় মতন আপনার বাম্পার আদার ফলন হাতে চলে আসবে।

Back to top button