কড়াইশুঁটির কচুরি ভাজতে গেলেই বেরিয়ে যায় ভিতরের পুর! এবার থেকে এইভাবে বানান কচুরি, পুর বেরোবে না আর!

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতকালের সিজনে আলুর দম বা সাদা আলুর তরকারির সাথে গরম গরম কড়াইশুঁটির কচুরি হলে কেমন হয় বলুন তো? এক কথায় অসাধারণ! কিন্তু অনেক সময়ে কড়াইশুঁটির কচুরি বানাতে গেলে সেটা ফেটে গিয়ে পুর বেরিয়ে যায়। তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা একদম স্টেপ বাই স্টেপ করাইশুঁটির কচুরি এমন ভাবে বানানোর পদ্ধতি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব যাতে আর পুর বেরোনো থেকে শুরু করে আর কোনো রকমের সমস্যা দেখা দেবে না। আশা করছি আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন আপনাদের ভালো লাগবে।

কড়াইশুঁটির কচুরি তৈরি করার জন্য একটা পাত্রের মধ্যে ২৫০ গ্রাম ময়দা নিয়ে তাতে দুই চামচ চিনি, স্বাদ অনুযায়ী নুন এবং এক চা চামচ মৌরির গুঁড়ো মিশিয়ে দিন। শুকনো এই উপকরণগুলোকে একসাথে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর ময়ানের জন্য চার টেবিল চামচ সাদা তেল দিয়ে দেবেন। ময়দা যখন হাতের তালুতে মুঠো করা যাবে তখন বুঝে নেবেন ময়ান সম্পূর্ণ হয়েছে।

এবার অল্প অল্প করে জল দিয়ে আপনাদের ময়দা ভালোভাবে মেখে নিতে হবে। একবারে অনেক বেশি জল ব্যবহার করে কিন্তু আপনারা ময়দা মাখবেন না। সাধারণত লুচি তৈরি করার সময় যেমন ভাবে ময়দার টেক্সচার তৈরি হয় এখানেও ঠিক তেমন করেই আপনাকে তৈরি করতে হবে। একটু সময় নিয়ে ময়দা মাখার চেষ্টা করবেন তাহলে কিন্তু কচুরি খুব ভালো ফুলবে। এবার ময়দা মাখা হয়ে গেলে কিছুক্ষণ সময় রেস্টে রাখবেন।

অন্যদিকে গ্যাসে একটা পাত্রে কিছুটা পরিমাণ জল বসিয়ে তাতে কড়াইশুঁটি দিয়ে গরম করে নিন। মিনিট তিনেক সময় ধরে আপনারা কড়াইশুঁটি সেদ্ধ করার কাজটি করবেন। এবার পেস্ট তৈরির জন্য কড়াইশুঁটি গুলোকে পাত্র থেকে নামিয়ে মিক্সিং জারে নিয়ে নিন।

এর মধ্যে একে একে হাফ চা চামচ চিনি, পাঁচটা কাঁচা লঙ্কা, হাফ ইঞ্চি পরিমাণে আদা এবং সামান্য লবণ যোগ করে পেস্ট তৈরি করুন। তারপর গ্যাসে একটা করাই বসিয়ে সেখানে সামান্য পরিমাণে তেল আর হিং যোগ করে দিন। এবার যে কড়াইশুটির পেস্ট তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে কড়াইতে দিয়ে দেবেন। হিং যেন কোন ভাবেই পুড়ে না যায় সেদিকেও আপনাদের খেয়াল রাখতে হবে তাই গ্যাসের ফ্ল্যেম একেবারে কমিয়ে রাখবেন।

তারপর এই রান্নার মধ্যে হাফ চা চামচ জিরের গুঁড়ো আর হাফ চা চামচ ধনের গুঁড়ো যোগ করে দিন। পুরের সাথে এই দুটো উপকরণ খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নেবেন। খেয়াল রাখবেন এর মধ্যে যেন কোনরকম ভেজা ভাব না থাকে। পুর তৈরি হয়ে গেলে এটাকে নামিয়ে একটা অন্য পাত্রে রাখুন এবং যে ময়দা মেখে রেখেছিলেন সেখান থেকে ছোট ছোট লেচি কেটে নিন।

এবার কড়াইশুঁটির পুর দিয়েও আপনাদের ছোট ছোট বলের মতন তৈরি করে নিতে হবে। মোটামুটি মাঝারি মাপের রুটি বেলে তার মধ্যে ধীরে সুস্থ্যে পুর ভরে নিয়ে আবারো একটু মেখে বেলে নেবেন। প্যানে কিছুটা পরিমাণ তেল নিয়ে গরম করে তার মধ্যে এবার ঝটপট কচুরি গুলোকে ভেজে ফেলুন। এরকমভাবে কচুরি ভাজলে কোনরকম ভাবেই পুর বেরিয়ে আসবে না আর খুব ভালোভাবে ফুলে উঠবে।

ভিডিওটি দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন – https://youtu.be/eqwY-1TeLzk

Back to top button