ঘণ্টার কাজ নিমেষেই শেষ করতে মাথায় রাখুন এই কয়েকটি দুর্দান্ত কার্যকরী কিচেন টিপস, কাজ দেবে ১০০%

নিজস্ব প্রতিবেদন: আমাদের প্রত্যেকেরই রান্নাঘরের একটি প্রয়োজনীয় জিনিস হল রেফ্রিজারেটর বা ফ্রিজ। কাঁচা সবজি থেকে শুরু করে রান্না করা খাবার সংগ্রহ করতে, রেসিপি তৈরি করতে অথবা জল বা কোল্ড্রিংস সংরক্ষণ করতে এর জুড়ি নেই। পাশাপাশি এমন বহু কাজ আছে যেটা ফ্রিজের মাধ্যমেই হয়ে থাকে। সমস্ত দিক বিবেচনা করে আজকে আমরা নিয়ে চলে এসেছি ফ্রিজ সংক্রান্ত বিশেষ কয়েকটি টিপস যা আপনাদের কাজ সহজ করে তুলবে। যারা নতুন গৃহিণী রয়েছেন তাদের অবশ্যই কিন্তু এই প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে পড়া উচিত। আশা করছি এটা আপনাদের অনেকটাই কাজে লাগবে।

১) অনেকেই ফ্রিজে একসঙ্গে বেশি করে মাছ বা মাংস কিনে রেখে থাকেন। কিন্তু পুরোটা হয়তো একবারে রান্না করা হয় না। সেখান থেকে হয়তো কিছুটা বের করে রান্না করা হয়। কিন্তু এই ক্ষেত্রে বাকি থাকা মাছ কিন্তু নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই সমস্যা থেকে বাঁচার জন্য বাড়িতে যে তেল নিয়ে আসা হয় সেই প্যাকেট গুলো আপনারা সংগ্রহ করে রাখতে পারেন। যতটা মাছ আপনাদের একদিনে রান্না হবে সেই পরিমাণ অংশ এই তেলের প্যাকেটে ভরে ফ্রিজে রাখবেন। তাহলে কিন্তু যতটুকু প্রয়োজন সেটা সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন আর বাকি মাছটাও কোনো রকম নষ্ট হবে না।

২) ফ্রিজে অনেক সময় বিভিন্ন কাঁচা সবজি একসঙ্গে রাখা হয়ে থাকে যার ফলে এগুলো একে অপরের সাথে মিশে যায়। যখন পরবর্তীতে ফ্রিজ থেকে এগুলো প্রয়োজন অনুযায়ী বের করা হয়ে থাকে তখন কিন্তু প্রচুর ঝামেলা হয়। এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে চাইলে বাড়িতে যে লেগিন্স থাকে পুরনো সেটা ভালো করে কেচে ধুয়ে নিন।

তারপর পায়ের অংশটাকে অর্ধেক করে কেটে একটা দিক গার্ডার লাগিয়ে ফেলুন। দেখবেন এগুলো একটা ছোট থলের মতন হয়ে গিয়েছে। এরমধ্যে প্রত্যেকটা সবজি আলাদা করে ভরে রাখুন এবং ফ্রিজে রেখে দিন। তাহলে একে অপরের সাথে মিশে যাবে না আবার অনেকদিন পর্যন্ত ভালো থাকবে।

৩) খুব বেশিদিন ফ্রিজে আদা রেখে দিলে দেখবেন ছাতা পড়ে যায় এবং একটা বাজে গন্ধ দেখা দেয়। বাজারে যে এডিবল ব্যাগ পাওয়া যায় সেগুলো নিয়ে এসে তার মধ্যে আদা আর রসুন ভরে ফ্রিজে রাখতে পারেন। তাহলে এই সমস্যা হবে না।

৪) বাজার থেকে অনেকেই কাঁচা লঙ্কা কিনে নিয়ে এসে ফ্রিজে রাখেন তবে তাতে খুব বেশি দিন পর্যন্ত ভালো থাকে না। যদি ফ্রিজের মধ্যে আপনারা লঙ্কা বেশি দিন সংরক্ষণ করতে চান সে ক্ষেত্রে বোটা ছাড়িয়ে একটা কন্টেনারে এগুলোকে ভরে রাখবেন।

৫) অনেক সময় বাজার থেকে একসঙ্গে প্রচুর সবজি কিনে নিয়ে আসা হয়। সেগুলো সঠিকভাবে যদি ফ্রিজে না রাখা হয় তাহলে কিন্তু ফ্রিজ নোংরা হবে আবার সবজিগুলো ভালো থাকবে না। সব সময় শক্ত সবজিগুলো নিচে রাখবেন আর হালকা গুলো উপরের দিকে রাখবেন।

৬) এবার বলব শীতকালের একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় সবজি মটরশুঁটির কথা। এটিকে খুব বেশিদিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করতে চাইলে প্রথমেই একটা ঝুড়ির মধ্যে এগুলো বের করে নিন। কিছুদিন খোলা হাওয়ায় রেখে দিলেই এগুলো শুকিয়ে যাবে। এই অবস্থায় অনেকদিন পর্যন্ত এটা সংরক্ষণ করা যাবে। তবে রোদে শুকাবেন না তাহলে রং চলে যেতে পারে।

৭) ফ্রিজে একসঙ্গে যেহেতু বহু খাবার রাখা হয় তাই গন্ধ হওয়ার একটা প্রবণতা থাকে। এই গন্ধ একবার হয়ে গেলে কিন্তু ফ্রিজ থেকে কোন খাবার ব্যবহার করা যায় না। এই সমস্যা থেকে বাঁচতে একটা কাচের বোতলের মধ্যে কিছুটা খাবার সোডা নিয়ে নিন। তারপর এর মধ্যে একটা লেবু কেটে অর্ধেক রেখে দিন। ফ্রিজের কোন কোনায় এই কৌটোটা রেখে দিলেই দেখবেন আর কখনো গন্ধ হবে না।

৮) মসলা বাজার থেকে কিনে নিয়ে আসার পর অনেকেই সেটা কৌটোতে ঢেলে দেন। ফলস্বরূপ সেটা অনেক দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। সেটা না করে আপনারা কিন্তু প্যাকেটসহ মসলা ফ্রিজের তাকে রেখে দিতে পারেন।

৯) চলে আসা যাক আজকের প্রতিবেদনের একদম শেষ টিপসে। ফ্রিজ পরিষ্কার করার জন্য সামান্য পরিমাণ বেকিং সোডা এবং জল ব্যবহার করবেন। ভালোভাবে এই দুটোর সংমিশ্রণে একটা দ্রবণ তৈরি করে ফ্রিজে মুছে নেবেন এবং তারপর একটা শুকনো কাপড় দিয়ে ভালো করে মুছে নেবেন। ফ্রিজের ভেতরের আর বাইরের অংশ দুটোই কিন্তু এই পদ্ধতিতে একদম পরিষ্কার ঝকঝকে হয়ে উঠবে।

Back to top button