রান্নাঘরের অর্ধেক খাটনি কমাতে জেনে নিন গরম জলের এই ৫টি দুর্দান্ত কার্যকরী ট্রিকস, কাজ দেবে ১০০%

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতের মরশুমে গায়ে ঠান্ডা জল লাগলে কিন্তু রীতিমতো কাঁপুনি ধরে যায়। তাই এই সময় স্নান করা থেকে শুরু করে বাসনপত্র ধোয়া সব কাজেই কিন্তু আমরা কম বেশি গরম জলের ব্যবহার করে থাকি। তবে আপনারা হয়তো গরম জল সংক্রান্ত বিশেষ কিছু হ্যাক জানেন না যা অত্যন্ত কার্যকরী।

রান্নাঘরে এই সমস্ত টিপস যদি কাজে লাগাতে পারেন তাহলে কিন্তু অনেক কাজই সহজ হয়ে যাবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে রান্নাঘরের বিভিন্ন কাজে গরম জলের ব্যবহার নিয়ে আমরা আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করতে চলেছি।যদি আমাদের আজকের টিপস গুলো ভালো লাগে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রতিবেদনটি একটা লাইক কমেন্ট আর শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

রান্নাঘরের বিভিন্ন কাজে গরম জলের ব্যবহার:

১) পাত্র থেকে লেবেল সরানোর জন্য:

বিভিন্ন নতুন বাসনের মধ্যে কিন্তু নানান ধরনের ট্যাগ বা লেবেল লাগানো থাকে। সঠিক সময়ে এগুলো তুলে না ফেললে কিন্তু বাসনের গায়ে এক প্রকার দাগ পড়ে যায়। সহজে এই লেবেল সরাতে চাইলে বা দাগ তুলতে চাইলে আপনারা গরম জল ব্যবহার করতে পারেন। তার জন্য কিছুক্ষণ পাত্রটি কে আপনাদের গরম জলে ডুবিয়ে রাখতে হবে। প্রয়োজনে সামান্য লেবুর রস অথবা ভিনেগারও দিয়ে দিতে পারেন। দেখবেন খুব সহজেই লেবেল অথবা ট্যাগ কিন্তু উঠে গিয়েছে।

২) ফ্রোজেন মাখন অথবা পনির অপসারণ করতে:

আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই কমবেশি মাখন ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে। একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর কিন্তু এটা জমে যায় তখন আর সঠিকভাবে ব্যবহার করা যায় না। এই ক্ষেত্রে আপনারা গরম জল ব্যবহার করে খুব সহজেই নিজেদের কাজ সহজ করে তুলতে পারেন। তার জন্য যে ছুরিটি দিয়ে মাখন তোলা হবে সেটাকে কিছুক্ষণ গরম জলে ডুবিয়ে রাখুন। সরাসরি এটাকে আগুনের তাপে কিন্তু ভুল করেও রাখবেন না। গরম জলে ডুবিয়ে রেখে আপনারা খুব সহজেই মাখন অথবা পনির নিজেদের ইচ্ছেমতো কেটে নিতে পারবেন।

৩) কিচেন কাউন্টার পরিষ্কার করার জন্য:

দৈনন্দিন রান্নায় ব্যবহৃত বিভিন্ন তেল মশলার কারণে কিচেন কাউন্টার ব্যাপকভাবে অপরিচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। বিভিন্ন জায়গায় তেলের দাগ পড়ে যায় বা একটা তেল চিটচিটে ভাব লক্ষ্য করা যায়। এগুলি পরিষ্কার করার জন্যেও আপনারা খুব সহজে কিন্তু গরম জল ব্যবহার করতে পারেন। একটা পাত্রের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ গরম জল নিয়ে তাতে এক চামচ পরিমাণ অ্যামোনিয়া মিশিয়ে নেবেন। তারপর এই জল দিয়ে খুব সহজেই রান্নাঘরের কাউন্টারের বিভিন্ন অংশ ধীরে সুস্থে পরিষ্কার করে নেবেন। দেখবেন আর কোন রকমের অপরিচ্ছন্ন ভাব থাকবে না।

৪)জ্যামড সিঙ্ক ঠিক করার জন্য:

রান্নাঘরের সিঙ্ক যদি কোন কারণে ময়লা জমে যায় সেটা কেউ কিন্তু আপনারা গরম জলের সাহায্যে ঠিক করে নিতে পারবেন। গরম জলের মধ্যে সামান্য পরিমাণ ভিনেগার মিশিয়ে সিঙ্কের গর্তের ভেতরে ঢেলে দিন। এর মধ্যে থাকা যেকোনো ময়লা বা আটকে থাকা জিনিস কিন্তু খুব সহজেই বেরিয়ে যাবে এবং এটা পরিষ্কার হয়ে যাবে।

৫) যে কোন খাবারের দাগ দূর করতে:

অনেক ক্ষেত্রেই কিন্তু অসাবধানতার কারণে কিচেন কাউন্টার থেকে শুরু করে বাড়ির মেঝেতে অথবা তাকে খাবারের দাগ পড়ে যেতে পারে। দীর্ঘ সময় ধরে পড়ে থাকলে এই দাগ কিন্তু বসে যায় আর সহজে উঠতে চায় না। এই ক্ষেত্রে আপনারা এক চা চামচ অ্যামোনিয়া গরম জলে মিশিয়ে স্ক্রাব করুন। এটি খুব সহজেই পরিষ্কার হবে এবং আপনাকে এটি ঘষতেও হবে । ঠিক একই ভাবে আপনারা জামা কাপড়ের উপর থাকা কোন দাগও তুলে ফেলতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে অ্যামোনিয়া ব্যবহার না করে বিকল্প লেবুর রস ব্যবহার করবেন।

Back to top button