খেলেই বারবার তৈরি করার বাহানা খুঁজবেন! এই সহজ ঘরোয়া পদ্ধতিতে বানিয়ে দেখুন সুস্বাদু নিরামিষ কলার মোচার কোপ্তা রেসিপি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিভিন্ন আমিষ আর নিরামিষ পদের মাঝে আমাদের মাঝেসাজেই কিন্তু একটু এমন রেসিপি ট্রাই করে দেখা দরকার যা হয়তো চট করে সকলে বানাতে জানেন না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর একটি খুবই প্রিয় খাবার আমরা নিয়ে চলে এসেছি। এটি হল কলার মোচার কোপ্তা রেসিপি। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভু কলার মোচা খেতে খুবই ভালোবাসতেন। তাই এই রেসিপি যদি আপনার প্রস্তুত করে থাকেন তাহলে সহজেই মহাপ্রভু বা জগন্নাথ দেবকে ভোগ নিবেদন করতে পারেন। চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

রেসিপি তৈরি করার জন্য প্রথমেই মোচা কিনে নিয়ে এসে সেটাকে ভালো করে ছাড়িয়ে নিতে হবে। বেশ যত্ন সহকারে এই কাজটি করবেন। তারপর মোচার মূল অংশটাকে নিয়ে আপনাদের চাকুর সাহায্যে টুকরো করে কেটে নিতে হবে। এবার একটা পাত্রের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ জল দিয়ে তাতে হলুদ গুঁড়ো দিয়ে দিন আর তার মধ্যে মোচাগুলোকে ভিজিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পর জল থেকে তুলে মোচাগুলো থেকে জল ঝরিয়ে নিতে হবে। এবার এই মিশ্রনের মধ্যে একে একে কয়েকটা উপকরণ যোগ করে দিন যা হল ১/২ কাপ ডাল বাটা,১/২ কাপ ধনেপাতা কুচি, এক চামচ হীং, এক চামচ লবণ, এক চামচ হলুদ গুঁড়ো, এক চামচ জিরা গুঁড়ো ও সাদা এলাচ। সবগুলো উপকরণ কে হাত দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে ফেলুন।

এবার এই মিশ্রণের মধ্যে ২ টেবিল চামচ চালের গুড়ো আর ২ টেবিল চামচ ময়দা যোগ করে দিতে হবে। তারপর আরো একবার ভালো করে মেখে নিয়ে গ্যাসে কড়াইতে তেল গরম বসিয়ে দিন। এই মিশ্রণ থেকে একটু একটু করে অংশ নিয়ে হালকা আঁচে ভেজে নিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে এটাকে তুলে রাখুন। এবার একটা মিক্সিং জারের মধ্যে আদা ,টমেটো আর কাজু বাদাম নিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর গ্যাসে আবারো একটা করাই বসিয়ে সেখানে সামান্য হীং, এক চামচ জিরে, একটা তেজপাতা, মরিচ আর দারচিনি যোগ করুন।

বেশ কিছুক্ষণ ফোড়নটাকে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। তারপর আগে থেকে টমেটো, আদা ও কাজুবাদাম এর যে পেস্ট তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে এখানে দিয়ে দেবেন। সামান্য পরিমাণে লবণ, হলুদ গুড়ো এবং জিরেগুঁড়ো এর মধ্যে দিয়ে দিন। বেশ কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে কষিয়ে নেওয়ার পর পরিমাণ মতো জল যোগ করুন। এবার একে একে মোচার তৈরি কোপ্তা গুলোকে এর মধ্যে দিয়ে দেবেন। বেশ কিছুক্ষণ ভালোভাবে ফুটিয়ে নিয়ে রান্নাটিকে গরম গরম নামিয়ে ভাতের সাথে পরিবেশন করুন। খেতে কেমন লাগলো অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button