বাড়ির ছাদে মাত্র ১৫ দিনের মাথায় তৈরি করুন ফুল বাগান! শুধু চারা লাগিয়ে করুন এই একটি ছোট্ট কাজ

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাগান করতে কমবেশি সকলেই অত্যন্ত পছন্দ করে থাকেন। তবে সঠিকভাবে যত্ন না নিলে কিন্তু কখনোই বাগানের সৌন্দর্য ভরে ওঠে না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাগানের সৌন্দর্য বহন করে থাকে রংবেরঙের ফুল। আজকে আমরা বলবো বোগেনভিলিয়া অর্থাৎ বাগান বিলাসের কথা। সহজেই সঠিক যত্ন নিয়ে এই ফুলের মাধ্যমে আপনারা কিন্তু নিজেদের বাগান ভরিয়ে তুলতে পারেন। তার জন্য আপনাদের অবশ্যই স্টেপ বাই স্টেপ কয়েকটি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা সেই সমস্ত টিপস নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করতে চলেছি আপনাদের সাথে।

বোগেনভিলিয়া গাছে ফুল ফোটানোর জন্য গোটা বছর ধরেই কিন্তু এটাকে লালন পালন করতে হবে। কাটিং থেকে তৈরি করা গাছে আপনারা খুব সহজেই ভালো বৃদ্ধি পেতে পারেন। এই গাছে কিন্তু আপনাদের ভালো ফুল পেতে গেলে অবশ্যই সঠিক সময় অনুযায়ী খাবার প্রয়োগ করতে হবে। প্রত্যেকটা গাছ প্রতিস্থাপন করার বা কাটিং থেকে চারা তৈরি করার একটা নির্দিষ্ট সময় থাকে। তবে বোগেনভিলিয়া গাছ কিন্তু বছরের বিভিন্ন সময়তেই প্রতিস্থাপন করা যেতে পারে। সাধারণত বর্ষাকাল কাটিং থেকে চারা তৈরি করার সেরা সময় হয়ে থাকে। তাই আপনারা চেষ্টা করবেন এই সময়ের মধ্যে কাটিং থেকে চারা তৈরি করে নিতে এবং সেটাকে প্রতিস্থাপন করতে।

বোগেনভিলিয়ার ছোট গাছে যদি আপনারা ভালো ফুল পেতে চান তাহলে গোটা বছর ধরেই গাছকে একটা সার্কুলেশনে রাখতে হবে। শীতকাল শুরু হওয়ার আগে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর অক্টোবর মাস নাগাদ গাছে জলের পরিমাণ কমাতে হবে। জলের পরিমাণ কম থাকলে টবের মাটি শুকিয়ে যাবে এবং পাতা ঝরে পড়বে। পাতা ঝরে যাওয়ার পরে আমরা যদি অক্টোবর নভেম্বর মাস নাগাদ গাছে খাবার প্রয়োগ করি, তাহলে কিন্তু খুব সহজেই দেখবেন গাছের চারা ধীরে ধীরে বেড়ে উঠেছে এবং সঠিক সময়ে ফুল দিচ্ছে।

খাবার হিসেবে আপনাদের এই সময় যে কয়েকটি জিনিস প্রয়োগ করতে হবে সেগুলো যেকোনো সারের দোকানে বা অনলাইন প্লাটফর্মে আপনারা খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।এই জিনিসগুলো হল—হাড়ের গুঁড়ো,সিং কুচি, গোবর সার, লাল পটাশ এবং সুপার ফসফেট। এই প্রত্যেকটা জিনিস যদি আপনারা পরিমাপ বুঝে গেছে প্রয়োগ করতে পারেন তাহলে অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই গাছ কিন্তু সম্পূর্ণ রংবেরঙের ফুলে ভরে উঠবে।

Back to top button