সন্ধ্যের জলখাবারে এই সহজ গোপন ট্রিকসে বানিয়ে দেখুন কুমড়োর খাস্তা পকোড়া, একবার খেলে বারবার চাইবেন

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা পাঠকদের উদ্দেশ্যে এমন একটি খাবারের রেসিপি শেয়ার করে নেব যা বিকেলের নাস্তা হিসেবে খুব সহজেই মন জয় করে নেবে। যদিও এই ধরনের রেসিপি আপনারা আগেও বানিয়েছেন তবে এটা কিন্তু একেবারে নতুন ভাবে তৈরি করা হবে।

অনেকটা বেগুনের মতোই স্বাদে কুমড়ো দিয়ে এই রেসিপিটি আজ আমরা তৈরি করার পদ্ধতি বলব। কি নাম রাখা যায় এই রেসিপির? আপনারাই বলুন? চলুন আমিই বলে দিই। যেহেতু তেলেভাজার আইটেম তাই কুমড়োর পকোড়া নাম রাখাটাই কিন্তু একেবারেই শ্রেয়। চলুন তাহলে এবার কিভাবে এই রেসিপি আপনারা তৈরি করবেন সেই প্রসঙ্গে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

১) পাতলা করে কেটে নেওয়া দশ পিস কুমড়ো
২) খাবার সোডা সামান্য
৩) স্বাদমতো লবণ
৪) কালোজিরে ১/৩ চামচ
৫) লঙ্কার গুঁড়ো ১/২ চামচ
৬) পরিমাণ মতো হলুদ
৭)রসুন বাটা ১/৩ চামচ
৮) বেসন এক বাটি
৯) জল আন্দাজ মত ও ভাজার জন্য তেল

কিভাবে তৈরি করবেন?

রেসিপিটি তৈরি করার জন্য আপনাদের প্রথমেই সরু ফালি করে কুমড়ো কেটে নিতে হবে। যতগুলো পকোড়া আপনারা তৈরি করতে চান সেই অনুপাতে কিন্তু কুমড়োর পিস কেটে নেবেন। তারপর একটা বড় পাত্র নিয়ে সেটার মধ্যে ১ বাটি বেসন,কালোজিরে ১/৩ চামচ, লঙ্কার গুঁড়ো ১/২ চামচ, হলুদ সামান্য, রসুন বাটা ১/৩ চামচ, খাবার সোডা সামান্য, নুন স্বাদ অনুযায়ী দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। তারপর আন্দাজ মত জল দিয়ে একটা ব্যাটার বানিয়ে নিন। মিডিয়াম কনসিসটেন্সির ব্যাটার তৈরি করবেন।

অর্থাৎ এটা যেন খুব একটা ঘন বা খুব একটা পাতলা না হয়ে যায় সেদিকে আপনাদের নজর দিতে হবে।। খুব ভালো করে এটা ফেটিয়ে নেবেন। তারপর গ্যাসে একটা কড়াই বসিয়ে পরিমাণ মত তেল ঢেলে গরম করে নিন। তেল গরম হয়ে গেলে একটা করে কুমড়োর পিস নিয়ে ব্যাটারে‌ চুবিয়ে নেবেন প্রথমে, তারপর গরম তেলে ছেড়ে ভালো করে উলটপালট করে ভেজে নেবেন। খেয়াল রাখবেন দুদিন যেন সমান ভাবেই মুচমুচে করে ভাজা হয়। তৈরি হয়ে গেল সুস্বাদু কুমড়োর পাকোড়া। গরম ধোয়া ওঠা চায়ের সাথে শীতকালের বিকেলে পরিবেশন করার জন্য এটি প্রস্তুত।

Back to top button