যতই জেদি হলদে দাগ হোক না কেন! এই ঘরোয়া জিনিস দিয়ে পরিষ্কার করুন বাথরুমের টাইলস, হবে নতুনের মতো চকচকে

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাড়ির প্রতিটা অংশের মতন নিয়মিত বাথরুম পরিষ্কার এবং ঝকঝকে রাখাটাও কিন্তু আমাদের একটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাজের মধ্যেই পড়ে।। যদি নিয়মিত আপনারা এই কাজটি না করেন তাহলে কিন্তু প্রচুর পরিমাণে বাড়িতে দুর্গন্ধ হতে পারে যা ঘরে থাকার সময় অসুবিধার সৃষ্টি করবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব কিভাবে বাথরুমের মেঝে থেকে শুরু করে অন্যান্য অংশ আপনারা অল্প সময়ের মধ্যেই সামান্য কটি উপাদান ব্যবহার করে পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

অনেকেই বাথরুম পরিষ্কার করার সঠিক পদ্ধতি জানেন না তাই প্রায় সমস্যায় পড়তে হয়। দেখা যায় দামী কোন পাউডার বা টয়লেট ক্লিনার বম্ব ব্যবহার করে থাকেন অনেকে বাথরুম পরিষ্কার করার জন্য। কিন্তু এগুলো অনেক ক্ষেত্রেই অত্যন্ত দামি হয় তাই সাধারণ মানুষের কিন্তু বেশ সমস্যার মুখোমুখি করতে হয়।। আজ তাই আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব কম খরচের কিছু বিশেষ পদ্ধতি।

বাথরুমের বেসিন পরিষ্কার করার পদ্ধতি:

বাথরুমে থাকা বেশি আপনারা কিন্তু খুব সহজেই একটি মাত্র ক্লিনিক প্লাস শ্যাম্পুর সাহায্যে পরিষ্কার করে নিতে পারবেন। বেসিন এবং তার চারপাশের অংশে একটা ছোট ক্লিনিক প্লাস শ্যাম্পুর প্যাকেট নিয়ে ছড়িয়ে সফট কোন স্ক্রাবারের সাহায্যে ভালো করে বেশ কিছুক্ষণ ঘষে জল দিয়ে ধুয়ে দেবেন। তাহলে কিন্তু এটা সম্পূর্ণ পরিষ্কার হয়ে যাবে।

শাওয়ার এবং ট্যাপ পরিষ্কার করার উপায়:

বেসিনের মতন শাওয়ার এবং ট্যাপ পরিষ্কার করার জন্যেও কিন্তু আপনারা শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। যদি ময়লা বেশি থাকে তাহলে শক্ত স্ক্রাবার আর ময়লা কম থাকে তাহলে একদম নরম স্ক্রাবার ব্যবহার করে ঠিক আগের মতই কিছুক্ষণ শ্যাম্পু লাগিয়ে ভালো করে ঘষে জল দিয়ে ধুয়ে নেবেন। তবে ভুল করেও কিন্তু কোন রকমের এসিডিক উপাদান এই ক্ষেত্রে ব্যবহার করবেন না।

বালতি এবং বাথরুমের জানালার কাজ পরিষ্কার করার উপায়:

অনেক সময় জলের কারণে কিন্তু বাথরুমে থাকা বালতিগুলি প্রচুর পরিমাণে নোংরা হয়ে যায়। এই কাজে ও ক্লিনিক প্লাস শ্যাম্পু অথবা যেকোন ডিটারজেন্ট পাউডার আপনারা ব্যবহার করতে পারেন। বেশ কিছুক্ষণ ভালোভাবে স্ক্রাবারের সাহায্যে ঘষে নিলেই সমস্ত ময়লা উঠে যাবে।

টয়লেট এর প্যান এবং বাথরুমের মেঝে পরিষ্কার করার উপায়:

টয়লেটের প্যান বাথরুমের মেঝে পরিষ্কার করার জন্য দীর্ঘ সময় ধরেই চলে আসছে হারপিকের প্রচলন। বাজারের যেকোনো হার্ডওয়ারের দোকানে আপনারা এই জিনিসটি কিনতে পেয়ে যাবেন। একটি বড় ব্রাশের সাহায্যে ভালো করে সম্পূর্ণ বাথরুমের মেঝে আর টয়লেটের মধ্যে হারপিক লাগিয়ে অন্ততপক্ষে 10 থেকে 15 মিনিট সময় পর্যন্ত ফেলে রাখুন।। তারপর ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে নিলেই কিন্তু বাথরুম একেবারে নতুনের মতন ঝকঝকে তকতকে হয়ে যাবে।

Back to top button