দীঘা বা পুরী নয়! কলকাতার কাছেই একদম সস্তায় এই জায়গায় উপভোগ করুন সমুদ্রের সৌন্দর্য

নিজস্ব প্রতিবেদন: বড়দিন এবং বর্ষবরণের প্রাক্কালে অনেকেই কিন্তু কোন জায়গায় ভ্রমণের কথা হয়তো চিন্তা ভাবনা করছেন। কিন্তু পকেটের কথা ও তো ভাবতে হবে। সাধারণ মধ্যবিত্ত বাঙালির পক্ষে তো আর চাইলেই যে কোন দূরদূরান্তে বেরিয়ে আসা যায় না। কিন্তু ভ্রমণের ইচ্ছাকে দমন করাটাও কিন্তু বড্ড কঠিন।

এই সময় দাঁড়িয়ে যদি কলকাতা থেকে ঢিল ছড়া দূরত্বে আপনাকে একটি সমুদ্রতটের খোঁজ দেওয়া হয় তবে কেমন লাগবে? আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাকে এমনই একটি জায়গার সন্ধান দিতে চলেছি যা মোটামুটি আপনার খরচ সাপেক্ষ হবে এবং নিরিবিলি এই পরিবেশ ভ্রমনের জন্য কিন্তু আপনার খুব একটা মন্দ লাগবে না। চলুন জেনে নেওয়া যাক।

আজ আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব ভ্রমণ কেন্দ্র হিসেবে বগুরান জলপাইয়ের কথা। যদি আপনারা বাসে করে যেতে চান সেক্ষেত্রে কোনটাই থেকে নেমে আপনাদের ১৫ থেকে ২০ মিনিট টোটো ধরতে হবে। চাইলে ট্রেনে করে কাঁথি থেকেও কিন্তু আপনারা বগুড়ান যেতে পারেন। তবে দিঘা বা পুরীর সমুদ্রের খোঁজ যদি আপনারা করছেন সেটা কিন্তু এখানে পাবেন না। কারণ এখানকার সমুদ্র খুবই শান্ত আর নিরিবিলি পরিবেশের মধ্যে বিরাজমান। যারা প্রাকৃতিক পরিবেশের সৌন্দর্য আর সমুদ্রের মাধুর্য উপভোগ করতে চান তাদের জন্য বড়দিনের প্রাক্কালে এটা কিন্তু ভীষণ মানানসই একটা জায়গা।

চওড়া বিচে এখান ওখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে লাল কাঁকড়ারা। জোয়ারের টানে যখন এগুলো তটে উঠে আসে তখন দেখতে এতটাই সুন্দর লাগে যে আপনাদের বলে বোঝানো যাবে না। সমুদ্র থেকে আসা মাতাল করা নোনা হাওয়া আর ঘন ঝাউবন সব মিলিয়ে এই জায়গার মতো সৌন্দর্য খুব কম জায়গাতেই আপনি পাবেন।

বগুরান জলপাই এর পাশেই রয়েছে জুনপুট আর বাঁকিপুট। শুধুমাত্র তাই নয় এখানে দর্শন করার মতো আপনারা আরও অনেক জায়গা পাবেন যেমন সাহিত্য সম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের কপালকুণ্ডলা মন্দির,দরিয়াপুর লাইট হাউস প্রভৃতি। যাওয়ার জন্য কিন্তু আপনাদের খুব একটা টাকা খরচ করতে হবে না সুতরাং বড়দিনের প্রাক্কালে কোথাও ভ্রমণের প্ল্যানিং থাকলে আর দেরি করবেন না।

এখানে ঘুরতে এলে থাকার জন্য বেশ কয়েকটি ভালো জায়গা আপনারা পেয়ে যাবেন। তবে থাকার জন্য একটাই ভালো রিসর্ট রয়েছে।এই রিসর্টের নাম হলো সাগর নিরালা রিসর্ট। এখানে ঘর আর কটেজ দুই রকমই ব্যবস্থা রয়েছে । খুব কম ভাড়াতে আপনারা এখানে থাকার জায়গা পাবেন। রিসর্ট থেকে বিচের দূরত্ব কিন্তু খুবই সামান্য। সুতরাং পরিবার-পরিজন বা বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে এই সময় ছুটি কাটাতে আসতে চাইলে চলে আসুন বগুড়ান জলপাই।

Back to top button