বাড়ির উঠোনে বা ছাদে টবেতে গোলাপের চারায় দিন এই ঘরোয়া একটি জিনিস, মাত্র ৭দিনেই ছোট্ট গাছে ধরবে প্রচুর কুঁড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাড়িতে গাছ লাগাতে ছাড়া পছন্দ করে থাকেন তারা কমবেশি সকলেই কিন্তু পরীক্ষামূলক পদ্ধতিতে নানান রকমের গাছ লাগিয়ে থাকেন।। লক্ষ্য করে দেখবেন এতে কাজ সম্পর্কে যেন নানান ধরনের অভিজ্ঞতার সঞ্চয় করা যায় ঠিক তেমনভাবেই কিন্তু অনেকটা মন ভালো হয়ে ওঠে। যদি আপনিও এমন মানুষদের মধ্যে পড়েন সেক্ষেত্রে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুধুমাত্র আপনার জন্য ই।

আজকের বিশেষ প্রতিবেদনে গোলাপ ফুলের গাছের কুঁড়ি থেকে কিভাবে চারা গাছ বড় হয়ে ওঠে তার একটি গোপন পদ্ধতি আপনাদেরকে জানাবো। এই বিশেষ পদ্ধতি জানলে কম বেশি সকলেই কিন্তু অবাক হবেন। চলুন তাহলে সময় নষ্ট না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক। যদি কোথাও অসুবিধা হয় আপনারা অবশ্যই সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

প্রথমেই আপনাদের বাগানের যে কোন পরিণত গোলাপ গাছ থেকে বেশ কয়েকটি কুঁড়ি নিয়ে আসতে হবে।। তারপর এর উপরের দিকটা রেখে বোঁটার অংশটা পুরোটাই একটা কাটারের সাহায্যে কেটে দেবেন। এবার একটা পাত্রের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ জল নিয়ে তাতে কয়েকটি রসুন টুকরো টুকরো করে কেটে ভিজিয়ে রাখুন। তারপর এই কেটে রাখা কুড়ি গুলোকে সেই পাত্রের জলে ভিজিয়ে দিন।

এবার অন্যদিকে একটি ছোট টবের মধ্যে মাটি নিয়ে তাতে কলার একদিকের খোসা বের করে রাখুন। তারপর ওই রসুন ভেজানোর জল থেকে একটি একটি করে গোলাপ কুড়ি তুলে এই গলার খোসার উপরে দিন। তারপর এর উপরে একটা মাটির লেয়ার সৃষ্টি করে দিন। রসুন ভেজানো জলটা এই মাটির উপর আপনাদের দিয়ে দিতে হবে।

এবার মোটামুটি আপনাদের কুড়ি দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে সম্পূর্ণ ফলাফল পাওয়ার জন্য। নির্ধারিত সময়ের পরে আপনারা দেখতে পারবেন টবের মাটি থেকে ছোট চারা গাছ বেরিয়ে এসেছে। এবার হালকা করে মাটি সরিয়ে যখন আপনারা ওই কুঁড়িগুলোকে বের করে নিয়ে আসবেন দেখবেন সেগুলো থেকে চারাগাছ বেরিয়ে এসেছে এবং নিচের অংশে মূল আসছে।

এবার ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার কোন টবের বেশি করে মাটি নিয়ে আপনাদের এই কাজগুলোকে প্রতিস্থাপন করে দিতে হবে। তারপর যেভাবে আপনারা যে কোন অন্য গোলাপ গাছ পরিচর্যা করে থাকেন ঠিক তেমনভাবেই এই গাছগুলো কেউ পরিচর্যা করবেন।। দেখবেন অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই এই গোলাপ গাছগুলি বড় হয়ে উঠবে এবং আপনার বাগানকে ফুল দিয়ে সাজিয়ে তুলবে। আজকের এই বিশেষ গোপনীয় টিপস আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই আমাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

Back to top button