একদম অল্প পুঁজিতে শুরু করুন এই দুর্দান্ত ও ইউনিক ব্যবসা! প্রতিদিন ঘরে বসে হবে ১৫০০ টাকা ইনকাম

নিজস্ব প্রতিবেদন: কম পুঁজিতে ব্যবসা শুরু করতে গিয়ে বহু এমন মানুষ রয়েছেন যারা হিমশিম খেয়ে যান। আসলে সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা ধারণা তৈরি হয়ে গিয়েছে যে ব্যবসা মানেই প্রচুর পরিমাণে অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে না হলে কখনো সাফল্য লাভ করা যাবে না।

তবে আপনাদের সকলের পরিচিতির বাইরেই এমন একটা জগত রয়েছে যেখানে কিন্তু খুব সহজেই আপনারা সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে কম খরচে ব্যবসা করতে পারেন।। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে এমনই একটি ব্যবসার আইডিয়া আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছি। ব্যবসা শুরু করতে আগ্রহী থাকলে অবশ্যই প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে পড়ে নিতে পারেন।।

পাপড় তৈরির ব্যবসা:

পাপড় তৈরির ব্যবসা শুরু করতে গেলে কিন্তু খুব বেশি পুজি আপনাকে বিনিয়োগ করতে হবে না। মোটামুটি ৩০ হাজার টাকার মধ্যেই আপনারা এই ব্যবসা সহজে শুরু করে ফেলতে পারবেন। এই ব্যবসা খুব সহজেই কিন্তু লাভবান হতে পারে কারণ যেহেতু খাদ্যদ্রব্যের ব্যবসা তাই বাজারে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। মার্কেটে আপনারা বিভিন্ন ধরনের পাপড় খোঁজ করলে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। যেগুলো ঠিক এরকম পদ্ধতিতে বিক্রি করে বাজারজাত করা হয়েছে। এই ব্যবসা শুরু করার জন্য কি কি লাগবে আসুন সেই সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

যদি আপনারা পাপড় তৈরি ব্যবসা শুরু করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাদের প্রয়োজন হবে একটি পাপড় রোলিং মেশিন। এই মেশিনটির দাম পূর্ববর্তী সময় মাত্র ১১ হাজার টাকা থাকলেও বর্তমানে এটি ২২ হাজার টাকায় পাওয়া যাবে। মূল্যবৃদ্ধির বাজারে মেশিনের দাম বেড়ে যাওয়াটা খুব একটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

মেশিন সহ কাঁচামাল মিলিয়ে আপনাদের প্রায় ৩০ হাজার টাকার কাছাকাছি খরচ পড়বে। এই ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনার কিন্তু কোন বড় জায়গার প্রয়োজন নেই। বাড়ির কোন কোনায় মেশিন বসিয়ে আপনারা খুব সহজেই নিজেদের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন। যদি কখনো ফ্যাক্টরি র আকারে বা বড় পরিসরে ব্যবসা শুরু করতে চান সেক্ষেত্রে অবশ্যই মেশিনের সংখ্যা বাড়িয়ে আপনারা জায়গা নিয়ে নিতে পারেন। কিন্তু সেটা পরবর্তী প্রসঙ্গ।।

এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে যদি আপনি খোলা প্যাকেটে পাপড় বিক্রি করেন সেক্ষেত্রে কোনো রকমের লাইসেন্সের প্রয়োজন পড়বে না। লোকাল মার্কেটে দোকানগুলির সাথে যোগাযোগ করে আপনারা খুব সহজেই এই পাপড় সাপ্লাই দিতে পারবেন। হোটেল রেস্টুরেন্ট বা ক্যাটারিং-এ কিন্তু আপনারা যোগাযোগ করে নিতে পারেন। তবে যদি আপনারা ব্র্যান্ড তৈরি করে বিক্রি করতে চান সেক্ষেত্রে অবশ্যই ট্রেড লাইসেন্সের পাশাপাশি আপনাদের ফুড লাইসেন্স তৈরি করে নিতে হবে।

সে ক্ষেত্রে অবশ্যই খরচ খরচা একটু বেশি পড়তে পারে।তবে সব মিলিয়ে পাপড় তৈরির ব্যবসা যে বেশ লাভজনক একথা নিঃসন্দেহে বলা যায়। পাপড় তৈরীর রোলিং মেশিন আপনারা খুব সহজেই যে কোন অনলাইন প্লাটফর্ম যেমন আমাজন বা ফ্লিপকার্টে পেয়ে যাবেন। বাড়িতে বসেই আপনারা স্টেপ বাই স্টেপ এটা অর্ডার করে শুরু করে দিতে পারেন নিজেদের ব্যবসা।

Back to top button