একদম অল্প ইনভেস্টে শুরু করুন এই দুর্দান্ত ব্যবসা! মাসে চোখ বুঁজে ইনকাম হবে ১ লাখ অবধি

নিজস্ব প্রতিবেদন: ব্যবসা অনেক ধরনের হয়ে থাকে তবে এমন কিছু ব্যবসা রয়েছে যেগুলো অল্প সময়ের মধ্যেই আমাদের জীবন পরিবর্তন করে দিতে পারে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নতুন ব্যবসায়ীদের সেই সমস্ত ব্যবসা সম্পর্কে কোন স্পষ্ট ধারণা থাকে না। তাই তাদের জন্য আমরা নিয়ে চলে এসেছি আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন যার মাধ্যমে একটি ইউনিক বিজনেস আইডিয়া আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব।

বর্তমান দেশের বাজারে এই ধরনের ব্যবসার চাহিদা কিন্তু ব্যাপক পরিমাণে রয়েছে এবং আপনি যদি এই কাজটি শুরু করেন তাহলে কখনোই ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে আজকের এই ব্যবসার আইডিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তথ্য জেনে নেওয়া যাক যাতে কাজটি শুরু করার পরে পাঠক বন্ধুদের কোন রকমের সমস্যার মুখোমুখি না হতে হয়।।

আজ আমরা আপনাদের সাথে এমন একটি ব্যবসার আইডিয়া শেয়ার করে নিতে চলেছি যা বাজারের বহু চাহিদা রয়েছে। এটি হলো গ্লাস শোপিসের ব্যবসা। যেকোনো ছোটখাটো অনুষ্ঠানে উপহার দেওয়ার জন্য অথবা ঘর সাজানোর কাজে কিন্তু এই শোপিস ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। জন্মদিন থেকে শুরু করে বিবাহ বার্ষিকী বা অন্য কোন বিশেষ দিনে আপনারা যেমন বিভিন্ন ডিজাইনার গ্লাস শোপিস উপহার হিসেবে দিতে পারেন, তেমনভাবে কিন্তু ঘরের বিভিন্ন কোণায় এটাকে সাজিয়ে রাখতে পারেন। অতএব বর্তমান বাজারে এই শোপিসের চাহিদা ঠিক কতখানি রয়েছে তা কম বেশি আপনাদের সকলেরই জানা।

এই ব্যবসা শুরু করার জন্য কিন্তু আপনাদের বিশেষ কোনো খাটনি করতে হবে না। পশ্চিমবঙ্গের বুকে কলকাতা তে এমন বহু পাইকারি মার্কেট রয়েছে যেখান থেকে একদম স্বল্প মূল্যে বা বলতে গেলে জলের দামে আপনারা শোপিস কিনে নিয়ে এসে লোকাল মার্কেটে বিক্রি করতে পারেন।। এই ব্যবসা করার জন্য আপনাদের যে বিশাল বড় কোন দোকানের ব্যবস্থা করতে হবে এমনটাও নয়। এই ব্যবসার জন্য আপনারা একেবারে খোলা মার্কেটে অথবা ফুটপাতে বসেও কিন্তু নিজেদের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন।

ভালো জায়গা থেকে যদি আপনারা কম দামে শোপিস কিনে প্রফিট রেখে লোকাল মার্কেটে বিক্রি করতে পারেন তাহলে মাসিক ভিত্তিতে প্রায় লক্ষ টাকার কাছাকাছি আপনাদের উপার্জন হতে পারে। প্রাথমিক ধাপে ব্যবসা শুরু করার পর পরবর্তীতে আপনারা এটাকে কিন্তু বড় পরিসরেও চালু করতে পারেন উপার্জনের একটু বেড়ে গেলে।

এই ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনাদের বিশেষ কোনো আলাদা লাইসেন্সের প্রয়োজন হবে না আর মূলধনেরও সংখ্যাটা নিতান্তই কম।। পরিকল্পনাটি ভালো লাগলে অবশ্যই কাছের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে নেবেন যাতে তারা একটা ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে নিজেদের কাজ শুরু করতে পারেন।।

Back to top button