কুয়োর মধ্যে কিলবিল করছে বিশালাকার কিং কোবরা! হাতে করে ধরতে গিয়ে যা ঘটলো যুবতীর সাথে, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: ইন্টারনেট জগতের অন্যতম বৈশিষ্ট্য গুলির মধ্যে আমরা প্রথমেই সোশ্যাল মিডিয়ার আবিষ্কারের কথা বলতে পারি। এই সোশ্যাল মিডিয়া একদিকে যেমন দূরদূরান্তের মানুষের সাথে আমাদের যোগাযোগ সহজ করে তুলেছে, ঠিক তেমন ভাবেই কিন্তু খুব সহজেই আমাদের অবসর বিনোদনের অন্যতম জায়গা দখল করে নিয়েছে। লকডাউনের পর থেকেই তৃতীয় বিশ্বের মানুষজনের মধ্যে এই নেট মাধ্যমের ব্যবহারের পরিমাণ প্রচুর পরিমাণে বেড়েছে। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে জীবজন্তু সবকিছুর দেখা আপনারা এই মাধ্যমে পেয়ে যাবেন।

যদিও আগেকার দিনে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার এতটা ব্যাপক পরিমাণে ছিল না। স্মার্টফোনের সহজলভ্যতা না থাকায় তখন এই সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহারের জন্য মানুষকে কম্পিউটার বা ল্যাপটপের উপর নির্ভরশীল থাকতে হতো।। এবার সবার কাছে যেহেতু কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থাকে না তাই ব্যবহারকারীর সংখ্যাটাও কিন্তু সীমিত হয়ে পড়েছিল। কিন্তু সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে প্রত্যেকটা জিনিসই পরিবর্তিত হয়ে যাবে এ আর বলার অপেক্ষা রাখে না। নেট মাধ্যমের ক্ষেত্রেও ঠিক তেমন ঘটনাই কিন্তু ঘটেছে।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা ইন্টারনেট জগতে ভাইরাল একটি ভয়াবহ ঘটনার ভিডিও নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি। মহিলাদের দুর্বল বলা হলেও তারা যে আজকাল পুরুষদের সমান কাজ করছেন আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন এবং তার সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখার পরেই আপনারা বুঝতে পারবেন। কিছু সময় আগেই ইন্টারনেটে যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে সেখানে দেখা যাচ্ছে একটি কুয়োর মধ্যে ভয়াবহ বিশালাকৃতির কোবরা সাপ কোনভাবে পড়ে গিয়েছে।

এটি কর্নাটকের একটি গ্রামের ঘটনা। স্থানীয় বাসিন্দারা এই সবটিকে দেখতে পেয়ে এক সর্পরক্ষক যুবতীকে খবর দেন। ঠিকই শুনেছেন যেখানে পুরুষেরা এই কাজ করে থাকেন সেই জায়গায় এখানে রয়েছেন এক যুবতি। ওই যুবতী এসে কোমরে দড়ি বেঁধে একটি মইয়ের সাহায্যে গভীর ওই কুয়োতে নেমে যান।। কারুর সাহায্য ছাড়াই ধীরে ধীরে তিনি হামাগুড়ি দিয়ে সাপটির কাছে এগিয়ে যান এবং তার লেজের অংশটি ধরে খুব সহজেই তাকে উদ্ধার করেন।

তবে অতর্কিত আক্রমণে সাপটি যে ভীষণ বিরক্ত হয়ে গিয়েছিল সেটা ভিডিও দেখলেই বোঝা যাচ্ছে। যখনই যুবতী তার লেজ ধরে তাকে ব্যাগে পোড়ার চেষ্টা করে ঠিক সেই সময়ে বেশ কয়েকবার সাপটি ফনা উদ্যত করে তাকে ছোবল দিতে যায়।। তবে ওই যুবতী বেশ দক্ষ হওয়ার কারণে সাপটি নিজের চেষ্টায় সফল হয়নি। সাপটি এতটাই রেগে ছিল যে তার ফোসফোসের আওয়াজ ভিডিওতে পর্যন্ত শোনা যাচ্ছিল। সাপটিকে ঝুলিতে ভরে নিয়ে বেশ দক্ষতার সাথেই আবারো কুয়োর উপরে উঠে আসেন ওই যুবতী এবং উপস্থিত সকলকে এই সাপটির সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানান।

এই ধরনের কাজের সাথে যে কোন মহিলা যুক্ত থাকতে পারে তা অনেকেরই ধারণার বাইরে। ভিডিওটি দেখার পর সকলেই কমবেশি ওই যুবতীর সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন এবং তাকে এই ধরনের আরো ভিডিও শেয়ার করার কথা বলেছেন।GURUKUL Edutech নামের একটি জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল থেকে এই ভিডিওটি বেশ কয়েক মাস আগে শেয়ার করা হয়েছে। এখনো পর্যন্ত প্রায় ৪.৫ মিলিয়ন মানুষ এই ভিডিওটি দেখেছেন এবং ৯০ হাজার মানুষের ভিডিওটিকে ব্যাপক পছন্দ করেছেন। যদি প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকে সেক্ষেত্রে অবশ্যই হাতে কিছুটা সময় নিয়ে আপনারাও দেখে আসতে পারেন এই ভিডিও।

Back to top button