গোটা কুয়ো জুড়ে কিলবিল করছে বিষাক্ত কিং কোবরা, তার মাঝে নেমে যা করলেন যুবক, চরম ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: ইন্টারনেট জগত এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যেখানে খুব সহজেই কিন্তু ছোট থেকে বড় ঘটনা ভাইরাল হয়ে ওঠে। একটা সময় ছিল যখন মানুষের মধ্যে এতটা বেশি পরিমাণে ইন্টারনেটের ব্যবহার ছিল না। তবে যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে স্মার্টফোনের সহজলভ্যতা সোশ্যাল মিডিয়াকে মানুষের হাতের মুঠোয় নিয়ে চলে এসেছে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সাথে এই সোশ্যাল মিডিয়াতেই ভাইরাল একটি বিশেষ ভিডিও সম্পর্কে জানাবো।

এই ভিডিওটি ভুল করেও কিন্তু দুর্বল হৃদয়ের মানুষেরা দেখবেন না কারণ এটা এতটাই ভয়াবহ যে হয়তো আপনি উদ্বিগ্ন হয়ে পড়তে পারেন।। সাপ সংক্রান্ত যেকোনো ভিডিও কমবেশি এর আগেও হয়তো আপনারা দেখেছেন। আজকের এই প্রতিবেদনের সাথে যে ভিডিওটি আপনারা দেখতে পারবেন সেরকম দৃশ্য কিন্তু চট করে খালি চোখে দেখতে পাওয়া যায় না। দিনশেষে সত্যিই তাই আমাদের সোশ্যাল মিডিয়াকে কুর্নিশ জানানো উচিত।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে জীবজন্তুর সবকিছুর ভিডিও কিন্তু কম বেশি ভাইরাল হয়ে থাকে। তবে লক্ষ্য করে দেখবেন সাপের ভিডিও কিন্তু অন্যান্য জীবজন্তুর ভিডিওর তুলনা একটু দ্রুতগতিতে ভাইরাল হয়। সাপ এমন একটি প্রাণী যাকে অনেকেই কিন্তু ধর্মীয় ভিত্তিতে পুজো করে থাকেন। এই সরীসৃপটিকে দেখে ভয় পায় না এরকম মানুষ হয়তো খুব কমই দেখা যাবে আশেপাশে।

সম্প্রতি যে ভিডিওটি ইউটিউবে ভাইরাল হয়ে উঠেছে তাতে দেখা যাচ্ছে বিহারের একটি প্রত্যন্ত গ্রামের কুয়োর মধ্যে একসাথে প্রায় দশটিরও বেশি ভয়ংকর বিশালাকৃতি কিং কোবরা সাপ বাসা বেধেছে। এই দৃশ্য দেখার পর গ্রামবাসীরা সাথে সাথেই এক সর্পরক্ষক যুবককে খবর দেন। সেই যুবক এসে প্রথমেই গ্রামবাসীদের ধন্যবাদ জানান সাপগুলিকে মেরে না ফেলার জন্য।

তারপর একটি মইয়ের সাহায্য নিয়ে প্রথমে কুয়োতে নামেন এবং তারপর ভালোভাবে সেই বিশালাকৃতি সাপগুলির ছবি তোলেন। এরপর সাপ ধরার যন্ত্র দিয়ে একে একে সেই ভয়াবহ সরীসৃপ গুলিকে নিজের ব্যাগে ভরে কুয়োর উপরে উঠে আসেন। প্রথমদিকে যে সমস্ত কিং কোবরা গুলিকে তিনি ধরেছিলেন তাতে খুব একটা অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়নি।। কিন্তু একেবারে শেষে যে দুটি নাগ এবং নাগিনীকে তিনি ধরার চেষ্টা করেন তারা অতর্কিত আগমনের ক্রুদ্ধ থাকায় বেশ কয়েকবার এই যুবককে ছোবল মারতে উদ্ধত হয়।

যদিও অত্যন্ত দক্ষতার সাথে তাদের ছোবল কে প্রতিরোধ করে যুবক তাদের উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। সাপ উদ্ধার করার পর উপস্থিত গ্রামবাসী এবং দর্শকদের উদ্দেশ্যে ওই যুবক বার্তা দেয় যে কোন সাপ দংশন করলে যেন কোনরকম ওঝা বা তন্ত্র মন্ত্র না করে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।। শেষে উদ্ধার করা এই সবগুলিকে জঙ্গলে গিয়ে ছেড়ে দেন এই সর্পরক্ষক যুবক। এই যুবকের একটি ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে যার নাম মুরলী ওয়ালে হৌসলা। তার এই চ্যানেলে একবার ঢুকলে এই ধরনের আরো নানান সাপ উদ্ধারের ভিডিও কিন্তু আপনারা দেখতে পেয়ে যাবেন।

আজকের এই প্রতিবেদনে আমরা যে ভিডিওটি নিয়ে আলোচনা করলাম তা প্রায় তিন মাস আগে শেয়ার করেছেন তিনি। তবে ভয়াবহ ভিডিও হলেও এখনো পর্যন্ত প্রায় ৫০ মিলিয়ন মানুষ এই ভিডিওটি দেখেছেন এবং ৫ লক্ষ ৯৯ হাজার মানুষ এই ভিডিওটিকে পছন্দ করেছেন। কমেন্ট বক্সে বহু মানুষই কিন্তু এই যুবকের প্রশংসা করেছেন এত সাহসিকতার সাথে সাপগুলিকে উদ্ধার করার জন্য। এরকম দক্ষতা খুব কম মানুষের মধ্যেই কিন্তু দেখা যায়। দেখে নিন সেই ভিডিও।

Back to top button