দেখলেই জিভে আসবে জল! এই সহজ গোপন ট্রিকসে একবার বানান দুর্দান্ত স্বাদের ফিস কারি, রইলো সম্পূর্ণ পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন: কথাতেই রয়েছে মাছে ভাতে বাঙালি। মাছের তৈরি বিভিন্ন রেসিপি কমবেশি আপনারা অনেকেই খেয়েছেন। তবে আজকে এমন পদ্ধতিতে ফিশ কারির রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব যা কমবেশি সকলেরই পছন্দ হবে। একবার এই রেসিপিটি যদি বাড়িতে বানান সে ক্ষেত্রে কিন্তু বাড়ির সদস্যরা রীতিমতো আপনার ফ্যান হয়ে যাবে।চলুন তাহলে দেরি না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

কিভাবে বানাবেন?

রেসিপিটি তৈরি করার জন্য আপনাদের প্রথমেই ৫০০ গ্রাম পরিমাণে নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী মাছ নিয়ে নিতে হবে। তারপর এর মধ্যে পরিমাণ মতো লবণ, সামান্য পরিমাণে লঙ্কার গুঁড়ো, কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো, হাফ টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়ো এবং সামান্য পরিমাণে লেবুর রস দিয়ে ম্যারিনেট করে ফেলুন।১০ থেকে ১৫ মিনিট পর্যন্ত এই অবস্থায় ম্যারিনেট করে রাখুন। এরপর আপনাদের দুটো পেঁয়াজ আর দুটো টমেটো নিয়ে আলাদা আলাদা করে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এরপর প্যানে কিছুটা পরিমাণ তেল দিয়ে সেটাকে চটপট গরম করে নিন আর তার মধ্যে মাছের পিসগুলোকে ভেজে ফেলুন। মাছ ভাজার কাজটি মিডিয়াম টু হাই ফ্লেমে একটু সময় নিয়ে করবেন।

মাছ ভাজা হয়ে গেলে এবার আপনাদের গ্রেভি তৈরি করার জন্য অন্য একটা প্যানের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ তেল নিয়ে নিতে হবে। সামান্য মেথি দানা যোগ করে একটু নাড়াচাড়া করে ফেলুন। মেথি একটু ভাজা ভাজা হয়ে গেলে যে পেঁয়াজের পেস্ট তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে রান্নায় দিয়ে দেবেন। পেঁয়াজ ভাজা হয়ে গেলে এর মধ্যে আদা রসুন বাটা, হাফ চামচ লবণ, এক টেবিল চামচ লঙ্কার গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ ধনে গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ জিরা গুঁড়ো এবং সামান্য হলুদ গুঁড়ো যোগ করুন।

বেশ কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে যে টমেটোর পেস্ট যোগ করে রেখেছিলেন সেটা কেউ দিয়ে দেবেন। যতক্ষণ পর্যন্ত না টমেটোর মধ্যে থাকা জলীয়ভাব শুকিয়ে যাচ্ছে এটাকে কষিয়ে নিতে থাকুন। এই পর্যায়ে এক টেবিল চামচ কসুরি মেথি আর এক টেবিল চামচ গরম মসলার গুঁড়ো যোগ করে দেবেন।

আরো বেশ কিছুক্ষণ মসলা কষিয়ে নেওয়ার পরে গ্রেভি তৈরি করার জন্য আপনাদের সাধারণ তাপমাত্রায় থাকা জল এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে।গ্ৰেভির কন্সিসটেন্সি আপনারা নিজেদের ইচ্ছেমতো রাখতে পারেন। জল মিশিয়ে একটু নাড়াচাড়া করে নিয়ে ভাজা মাছগুলোকে এর মধ্যে যোগ করে দিন। কিছুক্ষণ ফুটিয়ে নিয়ে কাঁচালঙ্কা যোগ করে গরম গরম মাছের এই কারি রেসিপি নামিয়ে ফেলুন। গরম ভাতের সাথে খেতে কেমন লাগবে অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button