শীতের সন্ধ্যে জমে যাবে পুরো! খুব সহজ এই ঘরোয়া উপায়ে ঝটপট বানিয়ে দেখুন খেজুর গুড়ের দারুণ টেস্টি পাটিসাপটা

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতকাল মানেই কিন্তু বিভিন্ন ধরনের পিঠের সমাহার। দুধপুলি থেকে শুরু করে ভাপা পিঠে অথবা পাটিসাপটা আপনারা কিন্তু কমবেশি সকলেই খেয়েছেন। কিন্তু একেবারে গ্রামাঞ্চলের স্বাদে তৈরি খেজুর গুড় দিয়ে পাটিসাপটা কতজন খেয়েছেন? একটা সময় যদিও আমাদের ঠাকুমা দিদিমারা খুব সহজেই এই ধরনের রেসিপিগুলো তৈরি করতেন। তবে সময়ের ফেরে কিন্তু আজ আর সেই দিন নেই। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল থেকে খেজুর গুড়ের পাটিসাপটার রেসিপি ভাইরাল হয়ে উঠেছে।।

এই ভিডিওটির বিশেষত্ব হচ্ছে একজন ঠাকুমা সম্পূর্ণ গ্রাম্য পদ্ধতিতে প্রাকৃতিক পরিবেশের মধ্যে একেবারে খোলা হাওয়ায় বসে এই রান্নাটি করেছেন এবং সকলের সাথে ভাগ করে নিয়েছেন। দর্শকদের রান্নাটা এতটাই পছন্দ হয়েছে যে সকলে নানান রকমের মন্তব্য করেছেন। আজ তাই এই প্রতিবেদনে আমরা সেই রেসিপিটাই আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নেব। যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে উঠেছে তাতে দেখা যাচ্ছে ওই ঠাকুমা চালের গুঁড়ো তৈরি করা থেকে শুরু করে খেজুর গুড় সংগ্রহ সমস্ত কাজই নিজেই ঘুরে ঘুরে করেছেন।

খেজুর গুড়ের পাটিসাপটা বানানোর জন্য আপনাদের যে জিনিসটা প্রথমেই প্রয়োজন হবে তা হল চালের গুঁড়ো। পাটিসাপটার পুর তৈরি করার জন্য আপনাদের এবার কুড়ানির সাহায্যে নারকেল কুড়িয়ে নিতে হবে। এবার এই নারকেল গুলোকে একটা কড়াইতে নিয়ে নিন এবং তাতে পরিমান মতন চিনি আর কিছুটা খেজুরের গুড় দিয়ে দিন।

ভালোভাবে হাতের সাহায্যে এটাকে মাখিয়ে নিতে হবে। মাখানো হয়ে গেলে এটাকে উনুনে বা গ্যাস ওভেনে চাপিয়ে একটু পাকিয়ে নিন। দেখবেন অনবরত নাড়াচাড়া করতে করতে এটা একেবারে নাড়ুর মতন পুর তৈরি হয়ে গেছে। ব্যাস তারপর এটাকে নামিয়ে একটা অন্য জায়গায় তুলে রাখুন। পিঠে বানানোর জন্য আপনাদের গোলা ভালো করে গুলিয়ে নিতে হবে।

গোলা তৈরি করার জন্য যে চালের গুড়ো আপনারা প্রথমেই আলাদা করে রেখেছিলেন সেটার মধ্যে কিছুটা খেজুরের গুড় আর চিনি মিশিয়ে নিন। যদি প্রয়োজন হয় এগুলোর পরিমাণ ধীরে বাড়াতে পারেন। চিনি আর গুড় দিয়ে ভালো করে মেখে নেবার পর দুধ দিয়ে আপনাদের এই মিশ্রণটা মাখিয়ে নিতে হবে। দুধ দিয়ে মাখানোর সময় এতে সামান্য পরিমাণ এলাচ বাটা যোগ করবেন। এবার চুলায় একটা কড়াই বসিয়ে পিঠে বানানোর জন্য সরষের তেল গরম করে নিন। তেল টাকে একটা অন্য বাটিতে ঢালুন এবং সেখান থেকে কিছুটা নিয়ে সমস্ত কড়াইতে ব্রাশ করুন।

তারপর যে গোলাটা তৈরি করে রেখেছেন সেখান থেকে কিছুটা করে নিয়ে এই কড়াইতে দিয়ে কড়াই টা একটু নাড়িয়ে চারদিকে গোলা টাকে ছড়িয়ে দেবেন। তারপর যে পুরটাকে তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে এই গোলার মাঝখানের দিয়ে ধীরে ধীরে রোল করে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে অসাধারণ পাটিসাপটা। মনে রাখবেন শীতকালীন যত পিঠে রয়েছে তার মধ্যে কিন্তু পাটিসাপটাকে এই রাজা বলা হয়ে থাকে। আজকের এই বিশেষ রেসিপি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই আমাদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

Back to top button