আপনার ব্যবসায় বাড়ছে না কাস্টমার! বিনা খরচে ট্রাই করুন এই ৫টি দুর্দান্ত গোপন ট্রিকস, কাস্টমার খুঁজবে আপনাকে

নিজস্ব প্রতিবেদন: ব্যবসা শুরু করার কিছু বিশেষ পদ্ধতি রয়েছে তা কম বেশি আপনারা সকলেই জানেন। আসলে কোনভাবেই কোন ব্যবসা কিন্তু সঠিক পদ্ধতি ছাড়া দাঁড়াতে পারে না। ব্যবসা দাঁড় করাতে গেলে যে সমস্ত স্টেপ আপনাকে অনুসরণ করতে হবে সেটা নিয়েই আজকের আমাদের প্রতিবেদনে আলোচনা করতে চলেছি।

যারা একেবারে নতুন ব্যবসায়ী রয়েছেন তারা অবশ্যই আমাদের এই প্রতিবেদনটা ফলো করে দেখতে পারেন। আজকের এই প্রতিবেদনে চারটে স্টেপ আলোচনা করব নিজেদের ব্যবসা দাঁড় করানোর জন্য। এই স্টেপগুলো ফলো করলে কিন্তু কাস্টমার নিজে থেকে হেঁটে আপনার বাড়িতে আসবে।

১) বিজ্ঞাপন বা advertising:

কোন ব্যবসা শুরু করার পর সেটাকে প্রমোট করা হচ্ছে সব থেকে বেশি প্রয়োজন। যদি আপনারা সেটাকে প্রমোট করতে না পারেন তাহলে কিন্তু সেই ব্যবসা সকল মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে যাবে না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছি একটি অ্যাডভার্টাইজমেন্ট এর পদ্ধতি।

যে ধরনের আপনারা ব্যবসা শুরু করতে চান সেই পণ্যটাকে নিয়ে অথবা আপনার ব্যবসা কে নিয়ে যদি সঠিকভাবে আপনারা অ্যাডভার্টাইজমেন্ট করতে পারেন তাহলে কিন্তু কখনোই ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা করতে হবে না এবং খুব সহজেই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্লাটফর্মের সাহায্যে আপনার ব্যবসা দূর দূরান্তে মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়বে।

২) কাস্টমারের সাথে সময় ভাগ করে নিন বা টাইম ইউটিলাইজ করুন:

অবশ্যই নিজের ব্যবসার সঙ্গে আপনাদের কাস্টমারকে যুক্ত করে নিতে হবে যাতে তারাও এই ব্যবসার অংশ মনে করে নিজেকে। মনে রাখবেন আপনার কাস্টমার যদি এই ব্যবসায় নিজেকে রাজা মনে করে তাহলেই কিন্তু আপনার ব্যবসা সহজেই দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাবে। কাস্টমারের থেকে যেটুকু সময় নেবেন ওইটুকু সময়ের মধ্যেই কিন্তু আপনাদের নিজের সমস্ত ধারণা তাদের কাছে তুলে ধরতে হবে। সব সময় কাস্টমারকে কিন্তু আপনাদের ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করতে হবে। যেকোনো ব্যবসা ধরে রাখার এটা হচ্ছে দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ দিক।

৩) নিজেকে মেন্টেন করুন বা সুন্দর করে রিপ্রেজেন্ট করুন:

সব সময় চেষ্টা করুন কাস্টমারের সাথে ভালো করে কথা বলতে এবং নিজেকে খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরতে। কারণ আপনি নিজের পণ্য এবং নিজেকে যত সুন্দর ভাবে কাস্টমারের সঙ্গে তুলে ধরতে পারবেন ততটাই কিন্তু সে আপনার ব্যবসার প্রতি আকৃষ্ট হবে। অনেকটা শপিংমলে সেলসম্যানরা যেভাবে কাজ করে থাকেন ঠিক সেভাবেই পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনাদের নিজেদের ব্যবসা এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।।

৪) ইনফ্লুএন্সার দিয়ে বিজনেসের প্রমোশন:

আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে বহু ইনফ্লুয়েন্সার যুক্ত রয়েছেন আমাদের সঙ্গে। যদি আপনাদের বাজেট বেশি থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু এই সমস্ত ইনফ্লুয়েন্সারের সাহায্য নিয়েও আপনারা ব্যবসা পরিচালনা করতে পারেন অথবা প্রমোট করতে পারেন। সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন ছবি অথবা ভিডিও কিম্বা অ্যাডভার্টাইজমেন্ট এর সাহায্যে এই ব্যবসা সহজেই দার করানো যেতে পারে। তবে অবশ্যই আপনাকে এমন ইনফ্লুয়েন্সার বেছে নিতে হবে যাকে বহু মানুষ চেনেন এবং তার বেশ ভালো পরিচিতি রয়েছে নেট মাধ্যমে।।

Back to top button